পার্বত্য এলাকায় কেউ দরিদ্র থাকবে না: ওবায়দুল কাদের

মংখিং মারমা, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ৩০ নভেম্বর ২০১৬, ২৩:০০

পার্বত্য এলাকায় আর কেউ দরিদ্র থাকবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, তিন পার্বত্য জেলা থেকে দারিদ্রতাকে জাদুঘরে পাঠানো হবে। পাহাড়ের মানুষদের ক্ষুধামুক্ত এবং তাদের কাঙ্খিত উন্নয়ন নিশ্চিত করাই বর্তমান সরকারের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

বুধবার দুপুরে বান্দরবানের চিম্বুক পর্যটন কেন্দ্রের পাশে জেলা আওয়ামী লীগের এক কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেছেন,পাহাড়ে মরণ নেশা ইয়াবাসহ মাদকদ্রব্য ছড়িয়ে পড়েছে। পার্বত্য এলাকাকে মাদকের সর্বনাশা অভিশাপ থেকে মুক্ত করা হবে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে আশ্বাস দিয়ে গেলাম, এই  তিন পার্বত্য জেলার দারিদ্রকে আমরা যাদুঘরে পাঠিয়ে দেবো। পাহাড়ে বিশেষ অগ্রাধিকার দিয়ে উন্নয়ন করে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত আছে। পার্বত্য শান্তি চুক্তি হয়েছে। শান্তি চুক্তির বাস্তবায়ন পাঁচ বছর দরকার ছিল না। বিএনপির সময়ে প্রমাণ হয়েছে শান্তি চুক্তি পরিত্যক্ত ছিল। শান্তি চুক্তি যে করে তার একটা দরদ থাকে। মায়ের মত একটা মায়া থাকে। শান্তি চুক্তির বাস্তবায়নে কাজ করছে সরকার। দেশের অনেক প্রধান মন্ত্রী আসবে। কিন্তু আমি বলে দিতে চাই, শেখ হাসিনার মত প্রধানমন্ত্রী মত আর পাবেন না। তিনি পাহাড়ের মানুষকে ভালবাসেন। সরকারের উন্নয়ন কাজে সহযোগিতা করে যেতে হবে।  পাহাড়ে শান্তির প্রক্রিয়ায় বাধাগ্রস্ত করেছে অবৈধ অস্ত্র।

তিন পার্বত্য এলাকায় বিপুল পরিমাণে অবৈধ অস্ত্র বাড়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে মন্ত্রী বলেন,অবৈধ অস্ত্র পরিহার করে সৎ পথে আসুন। প্রয়োজনবোধে অবৈধ অস্ত্র পরিহার করে আসলে তাদেরকে আমি চাকরি দেব।

চলতি অর্থবছরই বান্দরবান জেলায় গুরুত্বপুর্ণ এলাকাসমুহে রাস্তাঘাট ও সেতু নির্মাণে ব্যয় করা হবে ২৬০ কোটি টাকা। ইতোমধ্যেই সড়কও জনপথ বিভাগ এবং সেনাবাহিনীর নির্মাণ প্রকৌশল বিভাগ এসব উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন শুরু করে দিয়েছে ।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈ হ্লা। এই সময় আরও  উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, দক্ষিণ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুফিজুর রহমান, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মো.ইসলাম বেবী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য লক্ষীপদ দাসসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

ওবায়দুল কাদের দলের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর এটাই তাঁর প্রথম বান্দরবান সফর।

দুপুরে তিনি রাঙ্গামাটি থেকে ওয়াইজংশন এলাকায় সেনাবাহিনীর হেলিপ্যাডে একটি বিশেষ হেলিকপ্টারযোগে অবতরণ করেন। এ সময় হেলিপ্যাডে উপস্থিত পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈ হ্লা,জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় এবং বান্দরবান পৌর মেয়র মোসলাম বেবী ফুলের তোরণ দিয়ে সেতু মন্ত্রীকে স্বাগত জানান।

(ঢাকাটাইমস/৩০নভেম্বর/প্রতিনিধি/ইএস)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত