৪৫ বছরেও পুনর্বাসন হয়নি শহীদ মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীর

শওকত আলী, চাঁদপুর
 | প্রকাশিত : ৩০ ডিসেম্বর ২০১৬, ০৯:৩১

স্বাধীনতার ৪৫ বছরেও চাঁদপুরের মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীর পুর্নবাসন হয়নি। সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের পুনর্বাসন ব্যবস্থা রাখলেও স্বাধীনতার ৪৫ বছরেও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নানের (নং-১৩৪০৩২৬) স্ত্রী মনোয়ারা বেগমের পুনর্বাসন হয়নি। যেখানে  একজন মুক্তিযোদ্ধার সরকারি বাড়ি, খাসজমি বরাদ্দ, বিদ্যুৎ বিল মওকুফসহ সরকারি বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের জন্য চাকরিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নির্ধারিত কোঠা, অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা ও রেশনের ব্যবস্থা রেখেছেন। সেখানে শহিদ মুক্তিযোদ্ধার একমাত্র সদস্য স্ত্রী মনোয়ারার পুনর্বাসন না করায় বর্তমানে তিনি চাঁদপুর জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলার খাদেরগাঁও ইউনিয়নের বেলতী বাবার বাড়িতেই কষ্ট শীকার করে জীবন-যাপন করছেন।

বর্তমান সরকারে থাকা আওয়ামী লীগ ১৯৯৬ সালে প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী মুক্তিযোদ্ধাদের পুনর্বাসন ব্যবস্থা করেছে। এতো কিছুর পরেও কর্তৃপক্ষের দৃষ্টির অগোচরে রয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তৎকালীন সেনা সদস্য ও একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদ আ. মান্নানের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সনদ নং ম-৭৬৫২৮।

দুঃস্থ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্য হওয়া সত্বেও শহীদ সেনা সদস্যের স্ত্রী মনোয়ারা বেগমের আবেদন যথাযথ কর্তৃপক্ষের নজরে আসেনি। কুমিল্লা সেনানিবাসে সেনা পল্লীপ্রকল্পে প্লট বরাদ্দ নীতিমালায় আবেদন করেও কোনো সুবিধা পাননি। স্বাধীনতার পরে বাংলাদেশে একাধিকবার সরকারের পরিবর্তন হয়েছে, কিন্তু অসহায় এই শহীদ পরিবারের ভাগ্যের কোনো পরিবর্তন হয়নি। জুটেনি পুনর্বাসনের জন্য এক শতক জমিও।

পুনর্বাসন সুবিধা পাওয়ার জন্য  স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া (বীর বিক্রম), জেলা প্রশাসন চাঁদপুর, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি দাবি জানিয়েছেন মনোয়ারা বেগম।

(ঢাকাটাইমস/৩০ডিসেম্বর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত