নরসিংদীর গুলিবিদ্ধ যুবকের ঢামেকে মৃত্যু

নরসিংদী প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৯ জানুয়ারি ২০১৭, ০০:১১ | প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারি ২০১৭, ২৩:৩৬

ইয়াবা বেচা-কেনায় বাধা দিতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে চারদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর মারা গেলেন নরসিংদীর যুবক সুজন। শনিবার বিকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) তার মৃত্যু হয়।

গত ২৪ জানুয়ারি রাতে ইয়াবা ‘বিক্রেতা’দের হাতে আহত হয়ে ধারালো অস্ত্রের কমবেশি অর্ধশত কোপ, দুই পায়ের রগ কাটা, হাতপায়ের আঙ্গুল কাটা ও কলিজায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন সুজন। 

জানা গেছে, সদর উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের দড়িপাড়া গ্রামের হানিফের ছেলে সুজন, হাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা মেম্বার রেখা বেগমের ছেলে কামাল, আবুল হোসেনের ছেলে ফয়সাল এবং দত্তপাড়া মহল্লার শিপলুরমধ্যে খুবই বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল। 

একই ইউপি মেম্বার রেখা বেগম ইয়াবা বেচাকেনায় জড়িত বলে অভিযোগ। সুজন এতে বাধা দেয়ায় তার সাথে বিরোধ দেখা দেয়। গত ২৪ জানুয়ারি সুজন ঢাকা থেকে ফেরার পথে মহিলা মেম্বার রেখার ছেলে, সুজনের বন্ধু কামাল, ও ফয়সাল মোবাইল ফোনে তাকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর কামাল,  ফয়সাল ও শিপলুসহ ১২/১৪ জনের একদল বন্ধু পরিচয়ধারী সন্ত্রাসী তাকে দড়িপাড়া গ্রামের আবেদ আলীর বাড়ির পাশের রাস্তায় নিয়ে যায়। সেখানে মহিলা মেম্বার রেখা বেগমের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে এবং গুলি করে মারাত্মক যখম করে। 

সন্ত্রাসীরা তার ঘাড়, মাথা, পিঠ, হাত-পা কুপিয়ে  ক্ষতবিক্ষত করে। পরে তারা উরু এবং বুকে দুটি গুলি করে। উরুর গুলিটি বেরিয়ে যায় এবং বুকের গুলিটি কলিজায় ঢুকে আটকে যায়। 

আশেপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নরসিংদী সদর হাসপাতালে ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। সেখান থেকে ঢাকার বক্ষব্যধি হাসপাতালে এবং পরে আবার সেখান থেকে ঢাকা মেডিকে কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। সেখানে কলিজায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে আইসিইউতে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। চারদিন আইসিইউতে থাকার পর শনিবার বিকেলে সুজন মারা যায়। 

সুজন আহত হবার পর দায়েরকৃত মামলায় মহিলা মেম্বার রেখা বেগমকে প্রধান আসামি ও তার ছেলে কামালসহ ৮ জনকে নামে এবং বেনামে ১৪ জনকে আসামি করে নরসিংদী সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। 

সদর থানার উপপরিদর্শক আশরাফ সিদ্দিকি বলেন, নিহতের বড় ভাই সুমন আজ রাতে মামলা করেছেন। মামলা নং ৪৫/১- ১৭। আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(ঢাকাটাইমস/২৮জানুয়ারি/প্রতিনিধি/ইএস) 

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত