মির্জাপুরে মুক্তিযোদ্ধা বাছাই কার্যক্রম অনিশ্চয়তার মুখে

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ২০:০৮

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই বাছাই কার্যক্রমে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। যাচাই বাছাই কমিটির সদস্যরা সদস্য সচিবের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে লিখিত অভিযোগ দেয়ায় এ কার্যক্রম অনিশ্চয়তা মুখে পড়ে বলে জানা গেছে। শুক্রবার কমিটির সদস্যরা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর এ লিখিত দেন।

জানা গেছে, শনিবার থেকে এ উপজেলার মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই বাছাই কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। সাত সদস্যের যাচাই বাছাই কমিটির মধ্যে রয়েছেন সভাপতি পদে একাব্বর হোসেন এমপি, সদস্য সচিব উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন, কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সদস্য অধ্যাপক আলী আকবর খান ডলার, জেলা কমান্ড ইউনিটের প্রতিনিধি আব্দুর সাত্তার ভূইয়া, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার অধ্যাপক দুর্লভ বিশ্বাস, সহকারী কমান্ডার সাংগঠনিক সিদ্দিকুর রহমান ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার খলিলুর রহমান।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার অধ্যাপক দুর্লভ বিশ্বাস ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘সদস্য সচিব উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন থাকলে যাচাই বাছাই কার্যক্রম সঠিকভাবে সম্পূর্ণ হবে না বলে মনে করা হচ্ছে। এ কারণে কমিটি তার প্রতি অনাস্থা এনেছে।’

দুর্লভ বিশ্বাস জানান, লিখিত অভিযোগে যাচাই বাছাই কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মো. একাব্বর হোসেন এমপিও তার প্রতি অনাস্থা জানিয়েছেন।

এদিকে যাচাই বাছাইয়ের একদিন আগে হঠাৎ এ খবরে মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।   

এ ব্যাপারে ইসরাত সাদমীন ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘শনিবার যাচাই বাছাইয়ের নির্ধারিত দিন। এর আগে স্থগিতের বিষয়ে কিছু বলা যাবে না। এছাড়া আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। মুক্তিযোদ্ধারা আমার পিতৃতুল্য। মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কার্যক্রমটি সরকারের যুগান্তকারী একটি পদক্ষেপ। তাদের কোনো কথা থাকলে আমার সাথে আলোচনা করতে পারেন। এছাড়া আমার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ রয়েছেন।’

লিখিত অভিযোগের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘এখনো আমি এ ধরনের কোনো আবেদন হাতে পাইনি।’

(ঢাকাটাইমস/১৭ফেব্রুয়ারি/প্রতিনিধি/জেবি) 

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত