নিরাপত্তা সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ২১:৩৭ | প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ২১:৩২

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জার্মানির মিউনিখে চলমান তিন দিনব্যাপী ৫৩তম নিরাপত্তা সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেছেন। স্থানীয় বাইয়ারেশা হফ হোটেলে শুক্রবার দুপুরে (স্থানীয় সময়) এই সম্মেলনের মূলপর্বের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।

বিশ্বের নানা দেশ থেকে প্রায় পাঁচশ প্রতিনিধি নিরাপত্তা সম্মেলেনে অংশ নিয়েছেন। অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ২৫ জন সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান, ৪৭ জন পররাষ্ট্রমন্ত্রী, ৩০ জন প্রতিরক্ষামন্ত্রী, জাতিসংঘের মহাসচিব এবং কমপক্ষে ৯০ জন পার্লামেন্টারিয়ান অংশ নিয়েছেন।

পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের মধ্যকার সম্পর্ক, ইউরোপ ও রাশিয়ার সম্পর্ক, ব্রেক্সিট ইস্যু, ন্যাটো জোটের করণীয় ইত্যাদি নানা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে নিরাপত্তা সম্মেলনে আলোচনা হবে বলে জানা গেছে।

এর আগে স্থানীয় সময় ভোর ৬টায়  নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিতে তিন দিনের সরকারি সফরে মিউনিখ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে জামার্নিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান।

এরপর বিমানবন্দর থেকে মোটর শোভাযাত্রার মাধ্যমে মিউনিখ মেরিয়ট হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে। তিন দিনের সরকারি সফরে প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীরা এই হোটেলেই অবস্থান করবেন।

শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় মিউনিখ শহরের মেয়র কর্তৃক আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার কথা রয়েছে শেখ হাসিনার।

বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১০টায় জার্মানির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যান শেখ হাসিনা। যাত্রাপথে আবুধাবিতে এক ঘণ্টা বিরতি নেন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীরা।

শনিবার জার্মান চ্যান্সেলর এঞ্জেলা মারকেলের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হবেন প্রধানমন্ত্রী। ওইদিন জলবায়ু নিরাপত্তা সংক্রান্ত প্যানেল আলোচনায় অংশ নেয়ার পর সন্ধ্যায় ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন। ১৯ ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকায় ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীরা।

সম্মেলনের ওয়েবসাইট থেকে জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত সরকারের ক্ষমতা গ্রহণের পরিপ্রেক্ষিতে ন্যাটো জোটের ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা, নানামুখী নিরাপত্তা ইস্যুতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের করণীয়, ইউক্রেন সংকট এবং রাশিয়ার সাথে সম্পর্ক, সিরিয়া সংকট, কোরীয় উপদ্বীপ পরিস্থিতি, ধর্ম-সংক্রান্ত সন্ত্রাসবাদ, তথ্য যুদ্ধ ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা হবে। এছাড়াও বৈশ্বিক স্বাস্থ্য ও জলবায়ুসংক্রান্ত নানা হুমকি মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের করণীয় নিয়েও আলোচনা হবে বলে জানা গেছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব এন্তনিও গুতেরেস, ইউরোপীয় কাউন্সিল প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাস্ক, ইইউ শীর্ষ প্রতিনিধি ফেডেরিকা মোঘেরিনি, ন্যাটো মহাসচিব জেন্স স্টোলেনবার্গ, ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি পেট্রো পোরোশেংকো, রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সার্গেই লেভরভ, আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আশরাফ ঘানি, নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী ইরনা সোলবার্গ, হাংগেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর ওরবিন, ইরাকি প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল আবাদি, চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং  ই, সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবেদ আল-জুবায়ের, ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ শরীফ, ইসরায়েলি প্রতিরক্ষামন্ত্রী আভিগডর লিবেরমেন, রেডক্রস ইন্টারন্যাশনাল কমিটির প্রেসিডেন্ট পিটার মওরের, হিউম্যান রাইটস ওয়াচের নির্বাহী পরিচালক কেনেথ রোথ অন্যান্যদের মধ্যে মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবেন বলে জানা গেছে।

(ঢাকাটাইমস/১৭ফেব্রুয়ারি/এসএএফ/জেবি) 

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত