ট্রাম্পের ফোনে আড়িপাতা

অভিযোগের তদন্ত চায় হোয়াইট হাউস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৬ মার্চ ২০১৭, ১০:১০

গত মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারাভিযানের সময় ওবামা প্রশাসন ক্ষমতার অপব্যবহার করেছিল কিনা, মার্কিন কংগ্রেসকে তা পরীক্ষা করে দেখতে নির্দেশ দিয়েছে হোয়াইট হাউস কর্তৃপক্ষ।

গত শনিবার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের করা অভিযোগের প্রেক্ষিতে এই নির্দেশ দেয়া হয়। নির্বাচনের ঠিক আগে সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা তার ফোন ট্যাপ করিয়েছিলেন বা ফোনে আড়ি পেতেছিলেন বলে অভিযোগ করেন নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যদিও এর পক্ষে কোন প্রমাণ দেন নি তিনি।

এদিকে হোয়াইট হাউস বলছে, এ ব্যাপারে যেসব প্রতিবেদন প্রকাশ পেয়েছে তা খুবই উদ্বেগজনক।

ওবামার এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে ওবামা কিংবা তার প্রশাসন কখনো কোন মার্কিন নাগরিকের ওপর নজরদারির নির্দেশ দেন নি। মার্কিন আইনে শুধুমাত্র বিদেশি শক্তির সঙ্গে জড়িত এজেন্টের ক্ষেত্রেই ফোনে আড়িপাতার অনুমোদন দেয়া যায়।

নির্বাচনের আগে প্রেসিডেন্ট ওবামা ট্রাম্পের ফোনে আড়িপেতেছিলেন এই অভিযোগের স্বপক্ষে ট্রাম্প এখনো কোনও প্রমাণ হাজির করতে পারেননি। কিন্তু তিনি মার্কিন কংগ্রেসকে এই অভিযোগ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন। নির্বাচনে রাশিয়ার ভূমিকা নিয়ে কংগ্রেস ইতিমধ্যেই একটি তদন্ত শুরু করছে।

নতুন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রেস সেক্রেটারি শন স্পাইসার বলেন, সেই তদন্তে এটাও দেখা উচিৎ যে সাবেক প্রেসিডেন্ট তার ক্ষমতার অপব্যবহার করেছিলেন কিনা।

শনিবার একাধিক টুইটার বার্তায় ট্রাম্প তার পূর্বসূরির বিরুদ্ধে ফোনে আড়িপাতার অভিযোগ করেন। সঙ্গে সঙ্গেই সেই অভিযোগ উড়িয়ে দেন ওবামার এক মুখপাত্র কেভিন লুইস। তিনি বলেন, এই অভিযোগ মিথ্যা। ওবামা কখনোই কোনও মার্কিন নাগরিকের ওপর নজরদারির নির্দেশ দেননি।

বেশ কজন রিপাবলিকান এবং ডেমোক্রেট রাজনীতিক প্রমাণ হাজির করতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তিনি বা তার কোনও মুখপাত্র এ বিষয়ে কোনও প্রমাণ দেননি।

তবে মার্কিন কিছু গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে যে, নির্বাচনী প্রচারণার সময়  ট্রাম্প শিবিরের কিছু সদস্যের সঙ্গে রুশ কর্মকর্তাদের গোপন যোগাযোগ নজরদারি করতে এফবিআই আদালতের অনুমতি চেয়েছিল। সেই অনুরোধ প্রথমে প্রত্যাখ্যান করলেও অক্টোবরে এফবিআইকে সেই অনুমতি দেয়া হয়। তবে সংশ্লিষ্ট আদালত বা এফবিআই এই ধরণের অনুমতির কথা নিশ্চিত করেনি।

এদিকে ডেমোক্রেট দলে সমর্থকদের অভিযোগ, রাশিয়ার সঙ্গে ট্রাম্পের যোগসাজশের কেলেঙ্কারি থেকে নজর ঘোরাতেই ওবামার বিরুদ্ধে মনগড়া এই অভিযোগ করছেন।

(ঢাকাটাইমস/৬মার্চ/জেএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত