ফতুল্লায় হোসিয়ারি কর্মকর্তাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ মার্চ ২০১৭, ২১:৩৩

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ফাহিম আহম্মেদ নামের একটি হোসিয়ারি কারখানার কর্মকর্তাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। রবিবার সকালে কাশিপুর রূপাইয়া হোসিয়ারি কারখানা থেকে তালা ভেঙে গুরুতর অবস্থায় ফাহিম আহম্মেদকে উদ্ধার করা হয়। প্রথমে তাকে নগরীর একটি হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে দুপুরে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

ঘটনার পর থেকে ওই কারখানার শ্রমিক সোহাগ ও তার ভাগ্নে ইউসুফ পলাতক রয়েছেন। ফাহিম মুন্সীগঞ্জের কাগজীপাড়া এলাকার ইলিয়াস মিয়ার ছেলে।

নিহত ফাহিম আহম্মেদের ভগ্নিপতি রূপাইয়া হোসিয়ারি কারখানার মালিক রাশেদ শিকদার সাংবাদিকদের জানান, তার শ্যালক ফাহিম আহম্মেদ কারখানার মার্কেটিং ম্যানেজার ছিলেন। ফাহিম ছাড়াও আরও দুই শ্রমিক সোহাগ ও তার ভাগ্নে ইউসুফ রাতে কারখানায় ঘুমাতেন। সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তিনি কারখানার গিয়ে তালা বন্ধ দেখতে পান। তিনি তালা খুলে ভেতরে গিয়ে দেখতে পান ফাহিম রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন।

ধারণা করা হচ্ছে, কারখানার কর্মচারীর (সোহাগ ও তার ভাগ্নে ইউসুফ) সঙ্গে পূর্ব বিরোধ ছিল ফাহিমের। এই বিরোধের জের ধরেই তাকে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে।

ফতুল্লা মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল উদ্দিন ঢাকাটাইমসকে জানান, মাথায় ভারী বস্তু ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ফাহিমকে হত্যা করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

অভিযুক্ত পলাতক দুই শ্রমিককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান ওসি।

(ঢাকাটাইমস/১৯মার্চ/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত