নিজ গ্রামে মিজারুল কায়েসকে অশ্রুসজল বিদায়

পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ মার্চ ২০১৭, ১৫:০২

সাবেক পররাষ্ট্র সচিব ও ব্রাজিলে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ মিজারুল কায়েসকে অশ্রুসজল নয়নে শেষ বিদায় দিয়েছে পিতৃভূমি পাকুন্দিয়াবাসী।

মঙ্গবার বেলা ১২টা ৫ মিনিটে নিজ এলাকা কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার হোসেন্দি উচ্চ বিদ্যালয় খেলার মাঠে জানাজা শেষে তাকে শেষ বিদায় দেয় এলাকাবাসী। এর আগে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারযোগে হোসেন্দি খেলার মাঠে মরদেহ পৌঁছলে হোসেন্দি ও আশপাশসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রশাসনিক, রাজনৈতিক ও বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোকজন ভিড় জমায়।

জানাজা নামাজের আগে হোসেন্দি খেলার মাঠে মিজারুল কায়েসের মরদেহ রাখা হলে স্থানীয় সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

পরে মরহুমের স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য দেন, কিশোরগঞ্জ-২ (কটিয়াদি-পাকুন্দিয়া) আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মো. হুমায়ুন কবীর, জেলা প্রশাসক মো. আজিমুদ্দিন বিশ্বাস, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদুল হাসান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম রেনু, পৌরমেয়র আক্তারুজ্জামান খোকন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মোতায়েম হোসেন স্বপন প্রমুখ। পরিবারের পক্ষ থেকে বক্তব্য দেন মরহুমের বড় ভাই মেজর জেনারেল (অব.) ইমরুল কায়েস।

পরে হোসেন্দি কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মো. ইসমাঈল হোসেনের ইমামতিতে জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এতে হোসেন্দিসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত কয়েক হাজার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

গত ১১ মার্চ স্থানীয় সময় রাত ৯টায় ব্রাসিলিয়ার একটি হাসপাতালে মিজারুল কায়েস ইন্তেকাল করেন। সেখানে গত ১৫ মার্চ মুসলিম দেশগুলোর রাষ্ট্রদূতদের আয়োজনে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সোমবার ভোরে তার মরদেহ দেশে পৌঁছে।  মঙ্গলবার বিকালে বনানী কবরস্থানে মরহুমের দাফন সম্পন্ন হবে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে মিজারুল কায়েসের মৃত্যুতে পুরো উপজেলায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। এলাকার এই কৃতী সন্তানকে হারিয়ে সবাই এখন শোকে মুহ্যমান।

(ঢাকাটাইমস/২১মার্চ/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত