শেরপুরের সীমান্ত অঞ্চলে বিলুপ্তির পথে কুটির শিল্প

আব্বাস উদ্দিন, ঝিনাইগাতী (শেরপুর)
 | প্রকাশিত : ০২ এপ্রিল ২০১৭, ১২:৪৮

শেরপুরের সীমান্ত অঞ্চলের আদিবাসী ও দরিদ্র জনগোষ্ঠী আয়ের অন্যতম উৎস ছিল  হস্তশিল্প, তাঁত শিল্প ও কুটির শিল্প। কিন্তু পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে আজ  এসব শিল্প বিলুপ্তির পথে।যুগ যুগ ধরে এ অঞ্চলের আদিবাসী ও দরিদ্র জনগোষ্ঠীরা হস্তশিল্প, তাঁত শিল্প ও কুটির শিল্পের মাধ্যমে নানাজাতের সামগ্রী তৈরি করে নিজেরা ব্যবহার করত এবং বাজারজাত করে দেশের অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটাতে যোগান্তকারী অবদান রেখে আসছিল। কিন্তু বর্তমানে নানা প্রতিকূলতার কারণে এখন আর তাদের ঐতিহ্যবাহী হস্তশিল্পের নানা কারুকার্য়ের সামগ্রী তৈরি করতে পারছে না।

তাঁত শিল্পের মাধ্যমে তারা তৈরি করত, বাহারি রকমের শাড়ি, লুঙ্গি, গামছা, তোয়ালে, ব্যাগ, চাঁদর ইত্যাদি।

প্রসঙ্গত, এই পাহাড়ি অঞ্চলে হস্তশিল্পের নানা সামগ্রী তৈরির কাচাঁমাল সুলভমূল্যে পাওয়া যেত। ধীরে ধীরে এই শিল্প বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সীমান্ত অঞ্চলের বহু আদিবাসী ও দরিদ্র শিল্পকর্মীরা বেকার হয়ে পড়েছে। কর্ম না থাকায় সংসারে অভাব-অনটনের কারণে কর্মক্ষম ব্যক্তিরা কর্মের সন্ধানে ঢাকায় পাড়ি দিয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২এপ্রিল/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত