মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত ৭, কিশোরগঞ্জ শহরে আতঙ্ক

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৪ এপ্রিল ২০১৭, ২১:২৫

প্রায় এক বছর পর আবারো কিশোরগঞ্জ শহরে কালো মুখোশধারী সন্ত্রাসী তাণ্ডব চালিয়ে সাতজনকে আহত ও অন্তত অর্ধ শতাধিক দোকানপাট ও বাসাবাড়িতে হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে পুরো শহরবাসীর মাঝে এক ধরনের আতঙ্ক বিরাজ করছে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই সন্দেহভাজন তিনজনকে  আটক করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সোমবার রাত ৯টার দিকে শহরের মনিপুরঘাট এলাকায় কালো মুখোশধারী অন্তত ৪০-৫০ জন সন্ত্রাসী প্রকাশ্যে রামদাসহ মহড়া দেয়। এসময় সন্ত্রাসীরা মনিপুরঘাট এলাকা থেকে নগুয়া পর্যন্ত অন্তত তিনটি স্পটে তাণ্ডব চালায়। সন্ত্রাসীরা ধর ধর চিৎকার করে রাস্তায় যাকে পেয়েছে তাকেই কুপিয়েছে। তারা নগুয়ায় রাস্তার পাশে থাকা হাবিবা বিউটি পার্লার, ঘোমটা বিউটি পার্লারসহ অন্তত অর্ধ শতাধিক বাড়িঘর ও দোকানপাট ভাঙচুর ও তছনছ করেছে। তাদের হামলায় আহত হয়েছেন সাতজন।

আহতরা হলেন- খড়মপট্টি এলাকার শাহীন, বত্রিশ এলাকার হরিরাম, সৌমিক, জিসান, মনিপুরঘাট এলাকার হীরা, সতাল এলাকর ইমরান ও নান্দাইলের জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের উৎপল। তাদের মধ্যে শাহীন, জিসান ও হরিরামকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে শাহীন আইয়ুব হেনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

এদিকে পুলিশ অভিযান চালিয়ে এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তিন জনকে আটক করেছে।

আটকরা হলো- শহরের বত্রিশ এলাকার আতাউর রহমান কাজল, নগুয়া এলাকার নেয়াজ ও হয়বত নগর এলাকার সালমান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যবসায়ী জানান, এক বছর আগেও শহরের শোলাকিয়া এলাকায় মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা এমন হামলা চালিয়েছিল। জড়িতরা গ্রেপ্তার ও বিচারের মুখোমুখি হলে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি হতো না।

তিনি এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

এদিকে মঙ্গলবার বিকালে জেলা শহরের আখরাবাজার এলাকায় আবারও হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মীর মোশারফ হোসেন জানান, এ ঘটনায় পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে। জড়িত অন্যদের আটকের চেষ্টা করা হচ্ছে।

(ঢাকাটাইমস/৪এপ্রিল/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত