কাদেরের মন্তব্যে পর্তুগাল আ.লীগ সভাপতির তিরস্কার

কমরেড খোন্দকার, ইউরোপ ব্যুরো
 | প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৭, ০৯:৫০

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের বিভিন্ন মন্তব্যের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিয়েছেন দলটির পর্তুগাল শাখার সভাপতি জহিরুল আলম জসিম। গত কিছুদিন থেকে তিনি তার ফেসবুকে বিভিন্ন পোস্টে দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্যকে তুচ্ছ্-তাচ্ছিল্য করে কয়েকটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তাতে তিনি লিখেছেন- ‘আগামীতে ওবায়দুল কাদের সাইবেরিয়ান বার্ড বলতে পারেন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের।’

আরেকটি পোস্টে ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্যকে ‘বিনোদনমূলক’ বলে আখ্যায়িত করেন তিনি। ওই স্ট্যাটাসে জহিরুল আলম লেখেন- ‘জনাব কাদের হাসিরপাত্র হয়ে গেছেন।’

তিনি ওবায়দুল কাদেরের দায়িত্ব সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছেন। প্রশ্ন তুলেছেন বিভিন্ন জনসভায় দেয়া তার বক্তব্য নিয়েও।

তিনি দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে  প্রশ্ন করেছেন- তার আশপাশের নেতাকর্মী সম্পর্কে। সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফের সাথে তুলনা করে বলেছেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফ কথা কম বলতেন- আর কাজ বেশি করতেন। আশরাফকে অনুসরণ করার পরামর্শ দেন পুর্তগালের এই নেতা।

তবে মজার বিষয় হচ্ছে পর্তুগাল আ:লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক সেলিম উদ্দিন ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্যকে ‘ফালতু’ বলে কমেন্টস করেছেন।

পর্তুগাল আওয়ামী পরিবারে এ পোস্ট নিয়ে কানাঘুঁষা চলছে। তরুণপ্রজন্ম এসব নেতাদের বহিষ্কার দাবি করছেন।
অভিযোগ আছে, জহিরুল আলম জসিম তরুণ বয়সে সর্বহারার রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। ইউরোপের আওয়ামী রাজনীতিতে জহিরুল আলম জসিম একজন বিতর্কিত ব্যক্তি।

এ ব্যাপারে জহিরুলের সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি সবকিছু অস্বীকার করেন। তার ফেসবুক হ্যাক হয়েছে বলেও তিনি জানান।

‘সর্বহারার রাজনীতির সাথে তিনি যুক্ত ছিলেন’ এমন অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে জহিরুল বলেন, ‘ছোট বেলা থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। সর্বহারার রাজনীতির সাথে সম্পর্ক থাকার কোন প্রশ্নই আসে না।’

তবে পরিবারের অনেকেই জাসদের  রাজনীতির  সাথে জড়িত বলে জানান জহিরুল।

সর্বইউরোপিয়ান আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ গনি এ বিষয়ে বলেন, পর্তুগাল আ.লীগ সভাপতি জহিরুল আলম জসিম দলের সাধারণ সম্পাদক সম্পর্কে যেসব মন্তব্য করেছেন- সেটা তিনি জানতে পেরেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখবেন বলে জানান।

গনি আরো বলেন, দলের হাইকমান্ড সম্পর্কে এ ধরনের মন্তব্য আদৌও করে থাকলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অন্যদিকে সর্বইউরোপিয়ান আ:লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামিম হক বলেন, ‘এ ব্যাপারে সর্বইউরোপিয়ান আ.লীগের সভাপতি অনিল দাশ গুপ্তের সাথে কথা বলে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে না সে ব্যাপারে কারণদর্শানোর নোটিশ দেয়া হবে।’

(ঢাকাটাইমস/২১এপ্রিল/ব্যুরো প্রধান/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রবাসের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত