কুমুদিনী মেডিকেলে প্রথম পুনর্মিলনী

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৭, ১৮:০২

‘পুরনো সেই দিনের কথা বলবি কেরে আয়, ও সে চোখের দেখা প্রাণের কথা সেকি ভুলা যায়।’ পুরনো দিনের সেই স্মৃতির কথা বলতেই কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজে অনুষ্ঠিত হল প্রথম পুনর্মিলনী।

শুক্রবার মির্জাপুর কুমুদিনী কমপ্লেক্সের সবুজ চত্বরে নবীন-প্রবীণ ছাত্রীদের এক মিলন মেলা বসেছিলো।

এই পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন কুমুদিনী কল্যাণ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজিব প্রসাদ সাহা। 

এসময উপস্থিত ছিলেন পরিচালক শ্রীমতি সাহা, পরিচালক (শিক্ষা) ভাষা সৈনিক পতিভা মৎসুদ্দি, কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল হালিম, সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল জলিল প্রমুখ। 

অনুষ্ঠান উদ্বোধনের পর কলেজের বর্তমান ও প্রাক্তন ছাত্রী এবং অতিথিদের সমন্বয়ে একটি আনন্দ র‌্যালি বের করা হয়। মধ্যাহ্ন ভোজের পর শুর হয় স্মৃতি চারণমূলক অনুষ্ঠান।
এ পর্বে কলেজ জীবনের বিভিন্ন স্মৃতি তুলে ধরে প্রাক্তন ছাত্রীরা বক্তব্য রাখেন।

কলেজের প্রথম ব্যাচের ছাত্রী বর্তমানে নাইটিঙ্গেল মেডিকেল কলেজের এনাটমি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. ফাহামিদা ইয়াসমিন সোনিয়া বলেন, ১৬ বছরের জমে থাকা স্মৃতি আজ একেক করে মনে পড়ছে। ছাত্রী জীবনের সহপাঠীদের কাছে পেয়ে আমি খুবই আনন্দিত।

ষষ্ঠ ব্যাচের ছাত্রী ডা. সামিরা হেসেন একতা বলেন, কলেজ থেকে পাস করে বেরিয়ে কলেজ জীবনকে উপলব্ধি করতে পেড়েছি। সবাই আজ একত্রিত হতে পেরে খুবই আনন্দিত।

বর্তমানে অধ্যায়নরত ৪র্থ বর্ষের ছাত্রী আফছানা কবির বলেন, পুরনো যাদের চিনি তাদের কাছে পেয়ে খুব ভাল লাগছ্।ে

অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল হালিম তার বলেন, কলেজের প্রথম পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানটি সকলের সহযোগিতায় আয়োজন করতে পেরে খুবই আনন্দিত ও গর্বিত। এই কলেজে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স চালু করার প্রত্যয় নিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

প্রথম পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানকে ঘিরে মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাস সেজেছিলো অপরূপ সাজে। বিকেলে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে নবীন প্রবীণ শিক্ষার্থীরা সংগীত পরিবেশন করেন।

(ঢাকাটাইমস/২১এপ্রিল/প্রতিনিধি/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত