সন্ত্রাসীরা সফল হয়নি, বিজয়নগরে মন্ত্রী ছায়েদুল

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৩ এপ্রিল ২০১৭, ২০:৩৬ | প্রকাশিত : ২৩ এপ্রিল ২০১৭, ১৯:৪৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের হরতালসহ সব বাধা ডিঙিয়ে গিয়ে প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র উদ্বোধন করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী মোহাম্মদ ছায়েদুল হক। উদ্বোধনের পর মন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেছেন, সন্ত্রাসীরা বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চেয়েছিল। কিন্তু তারা সফল হয়নি।

মন্ত্রী চলে যাওয়ার পর প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের পার্শ্ববর্তী এলাকায় তিনটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি।

রবিবার বেলা একটায় প্রাণিসম্পদ কেন্দ্র উদ্বোধনের সময় মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শফিকুল আলমসহ বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাবের কর্মকর্তারা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ আসনের সাংসদ ছায়েদুল হকের এ কর্মসূচি নিয়ে গত তিন দিন ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। তার আগমন ঠেকাতে বিজয়নগরে হরতাল ডাকেন সদর আসনের এমপি র আ ম উবায়দুল মোক্তাদির চৌধুরীর অনুসারীরা। অন্যদিকে নিজের পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচিতে অংশ নেবেন বলে জানিয়ে দেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হক।

দুই পক্ষের উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে রবিবার জেলা সদর, বিজয়নগর, সরাইল ও আশুগঞ্জ এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন। বিশেষ করে মন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে বিজয়নগর উপজেলায় বিজিবি, র‌্যাব, এপিবিএন পুলিশের পাঁচ শতাধিক সদস্য মোতায়েন করা হয়।

ছায়েদুল হকের আগমন ঠেকাতে সকালে চান্দুরা ও সিঙ্গারবিল এলাকায় গাছের গুঁড়ি ফেলে ব্যারিকেড দেয় হরতাল সমর্থনকারীরা। পরে পুলিশ গিয়ে চান্দুরার ব্যারিকেড সরিয়ে নেয়। বিক্ষোভকারীরা নিজেরাই তুলে নেয় সিঙ্গারবিলের ব্যারিকেড।

বেলা পোনে একটার দিকে মন্ত্রী ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক হয়ে আখাউড়া-চান্দুরা সড়কে প্রবেশ করেন। চান্দুরা হয়ে বিজয়নগর যাওয়ার পথে কিছু বিক্ষোভকারী ইটপাটকেল ছোড়ে গাড়িবহরে। তাদের ছোড়া ইটের আঘাতে নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমতিয়াজ আহম্মেদ আহত হন। তাকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে বলে জানান জেলার এসপি মিজানুর রহমান।

প্রাণিসম্পদ কেন্দ্রের উদ্বোধনী সভা শেষে মন্ত্রী জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। তবে সেখানে পূর্বনির্ধারিত সুধী সমাবেশ করেননি মন্ত্রী।

ছায়েদুল হক প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্রে অবস্থানকালে এর কয়েক শ গজ দূরে জেলা যুব মহিলা লীগের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ করেন। তারা কালো পতাকা ও জুতা প্রদর্শন করেন। মন্ত্রী চলে যাওয়ার পর প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের পার্শ্ববর্তী এলাকায় তিনটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি।
প্রাণিসম্পদ কেন্দ্র উদ্বোধনের পর মন্ত্রী সংক্ষিপ্ত আলোচনায় অংশ নেন এবং সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন। মৎস্যমন্ত্রী বলেন, সন্ত্রাসীরা বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চেয়েছিল। কিন্তু প্রশাসনের কারণে তারা সফল হয়নি।

সরকারি কার্যালয় কারা ভেঙেছে সেটি খুঁজে বের করা হবে জানিয়ে ছায়েদুল হক বলেন, ‘প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্রটি সরকারের একটি উন্নয়ন কর্মকাণ্ড। এটি বাস্তবায়নের জন্যই আমি এসেছি। আমার কোনো ব্যক্তিগত কাজে নয়।’ তিনি আরো বলেন, ‘বিশ্বায়নের যুগে আমরা পিছিয়ে থাকতে পারি না। শেখ হাসিনার নেতৃত্ব বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে।’

স্থানীয় লোকজনের ভাষ্য, প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সদর আসনের সাংসদ উবায়দুল মোক্তাদির চৌধুরীকে নিমন্ত্রণ না করায় তার অনুসারীরা ক্ষুব্ধ হয়ে মন্ত্রীর অনুষ্ঠান বর্জনের ঘোষণা দেন গত বৃহস্পতিবার। ওই দিনই বিকেলে বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগ মন্ত্রীর আগমন ঠেকাতে আজকের সকাল-সন্ধ্যা হরতাল আহ্বান করে।

তারা হরতাল আহ্বান করেই থেমে থাকেনি, শুক্রবার দুপুরে বিজয়নগর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে তাকে লাঞ্ছিত করে এবং মন্ত্রীর নামাঙ্কিত উদ্বোধনী ফলক ভাঙচুর করে।

এ ঘটনায় শনিবার রাতে বিজয়নগর থানায় মামলা হয়েছে। প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মো. লুৎফুর রহমানের করা মামলায় অজ্ঞাতনামা শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে বলে জানান বিজয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলী আরশাদ।

মন্ত্রীর বিজয়নগরে সরকারি সফরে বাধা দেয়ার কারণ জানতে চাইলে রবিবার রাতে একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনের সাংসদ উবা্য়দুল মোক্তাদির চৌধুরী জানান, মন্ত্রী তার সফর ও প্রানিসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র উদ্বোধন সম্পর্কে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে কিছু জানাননি।  তাই স্থানীয় আওয়ামী লীগ ক্ষুব্ধ হয়ে হরতাল ডাকে।

জানানোটা বাধ্যবাধকতা কি না জানতে চাইলে মোক্তাদির  বলেন, বাধ্যবাধকতা নয়, তবে জানানোটা শিষ্টাচার।

(ঢাকাটাইমস/২৩এপ্রিল/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত