ফরিদপুরে ভারী বর্ষণে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

ফরিদপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৫ এপ্রিল ২০১৭, ১৪:৫৭

ফরিদপুরে কয়েক দিনের বৈরী আবহাওয়া ও ভারী বর্ষণে ধান, পাট, শাক-সবজিসহ চলতি মৌসুমের বিভিন্ন ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ঝিঙে, করলা, বেগুন, শসা, পেঁপেসহ বিভিন্ন সবজির ভারী বর্ষণের ফলে ক্ষতি হয়েছে ব্যাপক।

অপর দিকে মৌসুমের পাটের বীজতলা ও বোরো ফসল তলিয়ে যাওয়ায় কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পরেছে। ইতিমধ্যে যেসব পাটের চারা ১০/১২ ইঞ্চি লম্বা হয়েছে জেলার সেসব জমির বেশির ভাগ এখন হাঁটু পানিতে নিমজ্জিত।

সরেজমিনে পরিদর্শনে দেখা যায়, পানিতে নিমজ্জিত অধিকাংশ এলাকার ফসলহানিতে কৃষকরা দারুণ হতাশ হয়ে পড়েছেন। তারা আশংকা করছেন ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকলে ক্ষতির পরিমাণ আরও বেড়ে যাবে। তাছাড়া চলতি মৌসুমের বেশ কিছু এলাকার বোরো ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। আধপাকা ধানও ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে বলে জানান জেলার কৃষকরা। অনেক নিমজ্জিত জমিতে পাটের চারা পঁচে মরে যাচ্ছে। অসময়ে ভারী বর্ষণের ফলে বর্গাচাষী কিংবা দাদনের টাকা নিয়ে চাষাবাদ করা কৃষকরা এতে চরম বিড়ম্বনায় পড়বে বলে মনে করছেন অনেকে।

জেলার ভাঙ্গা উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের সাউতিকান্দা গ্রামের কৃষক রাজিব হাওলাদার ঢাকাটাইমসকে বলেন, ধার দেনা করে তিন বিঘা জমিতে পাটের আবাদ করেছিলাম। জমিতে এখন হাঁটু পানি। তাই চিন্তিত হয়ে পড়েছি।

অপরদিকে ভাঙ্গা উপজেলার চৌকিঘাটা গ্রামের কৃষক আমির হোসেন, তুজারপুর গ্রামের ওদুদ মিয়াসহ এলাকার কৃষকরা পাটের বীজতলা ও বোরো ফসল তলিয়ে যাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে কৃষিনির্ভর পরিবারগুলো দারুণ হতাশায় দিন কাটাচ্ছেন।

এ ব্যাপারে ফরিদপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আবদুর রউফ জানান, চলতি মৌসুমে হঠাৎ অধিক বৃষ্টিতে কৃষির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। জমির পাট পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে এবং অন্যান্য ফসলের পাশাপাশি ধান বিনষ্ট হয়েছে। তবে আবহাওয়া কমলে কী পরিমাণ ফসলের ক্ষতি হয়েছে তা আমরা জানাতে পারবো। এই মুহূতে আমরা কৃষকদেরকে জমির আইল কেটে নালা তৈরি করার পরামর্শ দিয়েছি। আশা করি আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে ক্ষতির পরিমাণ কমে যাবে।

(ঢাকাটাইমস/২৫এপ্রিল/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত