কাজী আরিফকে মৃত ঘোষণা, দেশে আসবে মরদেহ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ৩০ এপ্রিল ২০১৭, ১১:০৩ | প্রকাশিত : ৩০ এপ্রিল ২০১৭, ০৯:০৯

আবৃত্তিশিল্পী ও মুক্তিযোদ্ধা কাজী আরিফকে মৃত ঘোষণা করা হয়েছে। বাংলাদেশ সময় শনিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে লাইফ সাপোর্ট খুলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। আগামী মঙ্গলবার দেশে আসবে বরেণ্যে এই আবৃত্তিশিল্পীর মরদেহ।

দীর্ঘদিন থেকে অসুস্থ কাজী আরিফের হার্টের ভাল্ব অকেজো হলে তাকে ম্যানহাটনের মাউন্ট সিনাই সেন্ট লিউক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত মঙ্গলবার সেখানে ভাল্ব পুনঃস্থাপন এবং আর্টারিতে বাইপাস সার্জারি করা হয়। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে নেওয়া হয়। গতকাল তাকে ক্লিনিক্যালি ডেড ঘোষণা করা হয়েছিল।

কাজী আরিফের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছে বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ। তিনি এই সংগঠনের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ছিলেন। তিনি মুক্তকণ্ঠ আবৃত্তি একাডেমির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। তার স্ত্রী প্রজ্ঞা লাবণীও আবৃত্তিশিল্পী।

১৯৫২ সালের ৪ সেপ্টেম্বর রাজবাড়ী জেলা সদরের কাজীকান্দা গ্রামে জন্ম নেয়া কাজী আরিফ বেড়ে ওঠেছেন বন্দরনগরী চট্টগ্রামে। বাবা কাজী আজিজুল ইসলাম পাকিস্তান ইউনাইটেড ব্যাংকে চাকরি করতেন। মা কাজী নিন্নি ইসলাম। ছয় ভাইবোনের মধ্যে তিনি ছিলেন সবার বড়। স্কুল-কলেজ জীবনে ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তারপর ভর্তি হন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট)। সেখান থেকে স্থাপত্য বিদ্যা বিষয়ে উচ্চশিক্ষা নিয়েছেন তিনি।

কাজী আরিফ জাতীয় বসন্ত উৎসব উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। আশির দশকে বাংলাদেশে আবৃত্তিচর্চা এবং আবৃত্তিশিল্পকে আধুনিক সংগঠিত রূপ দিতে অন্যতম ভূমিকা রেখেছিলেন তিনি। তাঁর উল্লেখযোগ্য আবৃত্তির অ্যালবাম ‘পত্রপুট। বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের প্রতিষ্ঠাকালীন উদ্যোক্তাদের একজন তিনি। সারা দেশ ঘুরে আবৃত্তির প্রশিক্ষণ দিয়েছেন সংগঠনগুলোতে। তার প্রায় ১৭টির মতো আবৃত্তির অ্যালবাম বাজারে এসেছে।

ঢাকাটাইমস/৩০এপ্রিল/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত