পত্রিকা খুললেই মন্ত্রী-এমপিদের প্রাসাদ ও হোটেল দেখতে পান রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৯ মে ২০১৭, ২০:০০ | প্রকাশিত : ১৯ মে ২০১৭, ১৫:২৬

খবরের কাগজ খুললেই আওয়ামী লীগের মন্ত্রী-এমপিদের প্রসাদ আর হোটেলের ছবি দেখতে পান বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ‘নেতাদের এই অবৈধ সম্পত্তি রক্ষার জন্যেই প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতা ছাড়তে চান না।’

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে রিজভী এ কথা বলেন। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু ও যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকনসহ সকল রাজনৈতিক নেতার মুক্তির দাবিতে এ মানববন্ধনের আয়োজন করে বাংলাদেশ স্বাধীনতা ফোরাম।

বনানীর হোটেল রেইনট্রির প্রতি ইঙ্গিত করেই তিনি এ কথা বলেন। ওই হোটেলে গত ২৮ মার্চ ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন উল্লেখ করে গত ৬ মে একজন মামলা করেন। এরপর পাঁচ আসামি গ্রেপ্তারের পাশাপাশি হোটেল ‘রেইন ট্রি’র মালিকের পরিচয়ও সামনে চলে আসে।

যে প্লটে হোটেলটি তৈরি হয়েছে সেটি ঝালকাঠির আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য বি এইচ হারুনের। তবে হোটেলটি চালান তার ছেলে শাহ মো. আদনান হারুন।  বিএইচ হারুন গত পাঁচ বছরে বিপুল পরিমাণ সম্পদের মালিক হয়েছেন বলে একটি জাতীয় দৈনিক সংবাদ প্রকাশ করেছে।  

রিজভী বলেন, ‘সরকারের টার্গেট বিএনপিকে ধ্বংস করা…সরকার আতঙ্কে বিরোধী দলের নেতাকর্মী দিয়ে দেশের সমস্ত কারাগার ভরে রেখেছে। নেতাকর্মীদের গুম, খুন, হত্যার পরও সরকারের বিএনপি আতঙ্ক যেন কাটছেই না।’

রিজভীর দাবি বাংলাদেশের গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিটি ষড়যন্ত্রে আওয়ামী লীগ জড়িত। গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমেই নেতাকর্মীদের মুক্ত করার ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, ‘রাজপথে আন্দোলনের মাধ্যমে এ দুই নেতাকে মুক্ত করে সরকারের পতন তরান্বিত করা হবে। কারণ আন্দোলন সংগ্রামের দলের নাম বিএনপি।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আবু নাসের মোহাম্মাদ রহমত উল্লাহর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন, বিএনপির স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক শিরিন সুলতানা, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এবিএম মোশাররফ হোসেন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ প্রমুখ।

(ঢাকাটাইমস/১৯মে/বিইউ/ডব্লিউবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত