‘বাংলাদেশ বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের আগে সতর্ক হবে অ্যামনেস্টি’

আবু সুফিয়ান, লন্ডন
 | প্রকাশিত : ১৯ মে ২০১৭, ১৮:০৩

মানবাধিকার বা অন্য কোনো বিষয়ে বাংলাদেশের পরিস্থিতি নিয়ে প্রতিবেদক প্রকাশের ক্ষেত্রে এখন থেকে সতর্ক থাকবে মানবাধিকার  বিষয়ে আন্তর্জাতিক সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। আওয়ামী লীগের যুক্তরাজ্য শাখার শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে সংস্থাটির এক বৈঠকে এই কথা জানানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন বৈঠকে অংশ নেয়া একাধিক নেতা।

বাংলাদেশে মানবাধিকার বিষয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনকে অনেক সময় ঢালাও বলে প্রতিক্রিয়া দেয় সরকার। আর এই প্রতিবেদনে যেসব বিষয়ে উঠে আসে, তাতে কেবল অভিযোগকারীর বক্তব্যই থাকে। আবার মানবতাবিরোধী অপরাধী, জঙ্গি তৎপরতায় অভিযুক্ত বা উগ্রপন্থি অন্যান্যদের বক্তব্যের ওপর ভিত্তি করেও অ্যামনেস্টির বক্তব্য বা প্রতিবেদন দেয়ার ঘটনাও ঘটেছে। বিশেষ করে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া এবং ফাঁসির দণ্ড স্থগিতের দাবি করে নানা সময় সমালোচিত হয়েছে সংস্থাটি। আর এসব ঘটনায় সংস্থাটির গ্রহণযোগ্যতাও প্রশ্নের মুখে পড়েছে বাংলাদেশ।

চলতি মাসের শুরুতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে অ্যামনেস্টি দাবি করেছে, ‘দমন পীড়ন এবং ভয়ের ফাঁদে বাংলাদেশে মত প্রকাশের স্বাধীনতা।’ এখানে

সরকারি কর্মকর্তা, নিরাপত্তা বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন গণমাধ্যম কর্মীদের হুমকি দেয় বলেও অভিযোগ করেছে সংস্থাটি।’

তবে আওয়ামী লীগ বলেছে, ‘প্রকৃত পরিস্থিতি না জেনেই অসত্য তথ্যের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। এই প্রতিবেদনের তথ্যগুলোও উদ্ভট ও অযৌক্তিক।’

 

বাংলাদেশ বিষয়ক এই প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে যুক্তরাজ্যে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার  যুক্তরাজ্য শাখা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে সাথে অ্যামনেস্টির লন্ডন কার্যালয়ে বৈঠক হয়। এতে আওয়ামী লীগ নেতারা অ্যামনেস্টির গবেষণার বিভিন্ন দুর্বল ও অসত্য দিক তুলে ধরেন ।

যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ শাখার সভাপতি সুলতান মোহাম্মদ শরিফ ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘তারা (অ্যামনেস্টি) যে গবেষণা রিপোর্ট তুলে ধরেছে তা অনেকটাই বাংলাদেশের সাম্প্রতিক বিভিন্ন ক্ষেত্রে উন্নয়নের ধারাকে পাশ কাটিয়ে করা হয়েছে।’

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইয়িদ  সাজেদুর  রহমান চৌধুরী ফারুক বলেন , ‘আমরা অ্যামনেস্টিকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছি যে,  তাদের গবেষণাগুল বাংলাদেশকে যথাযথভাবে প্রতিফলিত করেনি। তাই তারা ভবিষ্যৎ দিনগুলোতে আরও সতর্ক হয়ে সংশ্লিষ্টদের সাথে যোগাযোগের মাধ্যমেই রিপোর্ট তৈরি করবে।’

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ শাখার সহসভাপতি সয়িদ মুজাম্মেল আলি  বলেন,  ‘অ্যামনেস্টিইনটারন্যাশনালের  গবেষণার বিভিন্ন ভুল স্বীকার করে নিয়েছে।’

আলোচনায় আরও উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের নেতা  নঈম উদ্দিন রিয়াজ, অ্যামনেস্ট ইনটারন্যাশনালের  আঞ্চলিক পরিচালক বিরাজ প্রান্তিক, গবেষক অউট ব্লমগ্রিস্ত এবং  সংগঠক পারমিন্দের পাল্লে ।

তবে এই বৈঠকের বিষয়ে অ্যামনেস্টির পক্ষ থেকে কোনো আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দেয়া হয়নি।

ঢাকাটাইমস/১৯মে/প্রতিনিধি/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত