দুই মাস পর আখাউড়া দিয়ে মাছ রপ্তানি শুরু

মহিউদ্দিন মিশু, আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) থেকে
 | প্রকাশিত : ২২ মে ২০১৭, ১৫:৫৯

প্রায় দুই মাস বন্ধ থাকার পর আখাউড়া স্থলবন্দর সীমান্ত পথে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলায় আবার মাছ রপ্তানি শুরু হয়েছে। সোমবার দুপুরে নো-ম্যান্সল্যান্ডে আখাউড়া স্থলবন্দরের মৎস রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. ফারুক মিয়া মাছ বোঝাই ট্রাকের কাগজপত্র তুলে দেন ত্রিপুরা মৎস আমদানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবু নাসের ঝুটনের হাতে। মাছ রপ্তানি শুরু হওয়ায় দুই দেশের ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের মাঝে কর্ম-চাঞ্চল্য ফিরে এসেছে।

জানা গেছে, বাংলাদেশ থেকে রপ্তানিকৃত মাছে ফরমালিন থাকার অভিযোগে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলার বিভিন্ন মাছ বাজার থেকে ৪০টি মাছ নমুনা হিসেবে সংগ্রহ করে রাজ্যের সংশ্লিষ্ট বিভাগ। পরে এসব মাছ পরীক্ষা করে ১১টিতে ফরমালিনের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। কিন্তু ফরমালিন পাওয়া মাছগুলো যে বাংলাদেশ থেকে যাওয়া তা নিশ্চিত হতে পারেনি তারা। ওই সমস্যা এড়াতে ভারতীয় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের আগরতলায় মাছ রপ্তানি করতে নিষেধ করেছিলেন।

আখাউড়া স্থলবন্দর মৎস রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. ফারুক মিয়া ঢাকাটাইমসকে জানান, ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলা মাছ বাজার থেকে সংগ্রহ করা মাছে ফরমালিনের অস্তিত্ব পেয়েছে এমন অভিযোগে চলতি বছরের ৫ মার্চ থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য মাছ রপ্তানি বন্ধ হয়ে যায়। এ নিয়ে দুই দেশের ব্যবসায়ী নেতারা সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠকে বসেন। পরে আখাউড়া-আগরতলা বন্দরে ফরমালিন টেস্ট করে রাজ্যে রপ্তানিকৃত বাংলাদেশি মাছ বাজারজাত করা হবে এমন সিদ্ধান্তে ভারত সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের ছাড়পত্র নিয়ে আজ দুপুর ১২টায় পুনরায় আগরতলায় মাছ রপ্তানি শুরু হয়েছে।

আখাউড়া স্থলবন্দর মৎস কর্মকর্তা মো. শরীফ উদ্দিন ঢাকাটাইমসকে বলেন, আগে বিভিন্ন বন্দর দিয়ে বাংলাদেশি মাছ ভারতে রপ্তানি করা হতো। কিন্তু এখন শুধু আখাউড়া স্থলবন্দর এবং বেনাপোল স্থলবন্দর সীমান্ত পথে ইলিশ মাছ ছাড়া সব ধরনের মাছ ভারতে রপ্তানির অনুমোদন দিয়েছে ভারত সরকার।

মাছসংক্রান্ত কাগজপত্র ভারতীয় ব্যবসায়ী নেতাদের হাতে তুলে দেয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন আখাউড়া স্থলবন্দরের সিএন্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন বাবুল, মাছ ব্যবসায়ী শাহনেয়াজ, ইকবাল মিয়া প্রমুখ।

(ঢাকাটাইমস/২২মে/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত