রায়পুরা সংঘর্ষ: এখনো থমথমে

নরসিংদী প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৭ মে ২০১৭, ১৯:০২
ফাইল ছবি

রায়পুরার দুর্গম চরাঞ্চলের বাঁশগাড়ীরচরে ত্রিমুখী উত্তেজনা বিরাজ করছে। শুক্রবার বিকালে সাহেদ সরকারের লাঠিয়াল বাহিনী ও পুলিশের মধ্যে বন্দুক ও টেটাযুদ্ধের পর এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। সংঘর্ষের সময় অপহৃত তিন পুলিশ কন্সটেবলকে উদ্ধার করা হয়েছে। সংঘর্ষের পর আওয়ামী লীগের দুই পক্ষ মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে।

অন্য দিকে দাঙ্গা পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এলাকায় ব্যাপক আতংক দেখা দিয়েছে। যে কোন সময়ই বড় ধরনের সংঘর্ষের আশংকা করছে সাধারণ মানুষ।

বিগত ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘটিত ৭টি হত্যাসহ ৪১টি মামলা হয়েছে রায়পুরা থানায়। এরপরও অব্যাহতভাবে চলছে বোমাবাজি, চাঁদাবাজি, ভাঙচুর, লুটতরাজ ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা।

শুক্রবার বিকালে রায়পুরা থানা পুলিশ মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তার করার জন্য এলাকায় অভিযান চালায়। অভিযান চলাকালে পুলিশ বাঁশগাড়ীর জোড়বিল এলাকা থেকে রুপ মিয়া মেম্বারসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করে। এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পর রুপমিয়া মেম্বারসহ চারজনকে ছিনিয়ে নেয়ার জন্য পুলিশের উপর হামলা চালায়। তারা বন্দুক ও টেটা নিয়ে পুলিশকে ধাওয়া করে পিছন দিক থেকে তিন পুলিশ কন্সটেবলকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এসময় পুলিশও পাল্টা গুলি বর্ষণ করে তাদের ধাওয়া করে গ্রেপ্তার রুপমিয়াসহ চারজনকে বাঁশগাড়ী ফাঁড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেয়। এসময় তারা আবার সংগঠিত হয়ে ফাঁড়ি ঘেরাও করে। পরে রুপমিয়া মেম্বার ও অন্যান্যদের ছিনিয়ে নেয়ার জন্য পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ, বোমা ও টেটা নিক্ষেপ করে। এসময় পুলিশ প্রাণ রক্ষার্থে পাল্টা গুলি বর্ষণ করতে থাকলে তিন পুলিশসহ উভয় পক্ষের ২৫ জন আহত হয়।

আহতদের মধ্যে মোস্তফা, নবী, রুবেল, মাসুদ, এরশাদ, আনোয়ার নামে ছয় জনের নাম জানা গেছে। বাকিদের নাম জানা যায়নি। এরা বিভিন্ন ক্লিনিকে গোপনে চিকিৎসা নিচ্ছে।

এদিকে তিন পুলিশ সদস্য অপহৃত হবার খবর পেয়ে নরসিংদী ও ভৈরব থেকে পুলিশ গিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই পুলিশ কন্সটেবলকে উদ্ধার করে। কিন্তু হামিদ নামে একজন কন্সটেবলকে উদ্ধার করতে পারেনি। পরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) সফিউর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের বিশেষ টিম এলাকায় অভিযান চালিয়ে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে অপহৃত পুলিশ কন্সটেবল হামিদকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

এই ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

(ঢাকাটাইমস/২৭মে/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত