নিরাপত্তাহীনতায় সাংবাদিক শিমুলের স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

বগুড়া প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৬ জুন ২০১৭, ২৩:৪২

দৈনিক সমকালের শাহজাদপুর প্রতিনিধি আবদুল হাকিম শিমুল হত্যা মামলার অন্যতম আসামি হাবিবুল হক মিন্টু জামিন পাওয়ায় শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন মামলার বাদী ও নিহত সাংবাদিকের স্ত্রী নুরুন্নাহার খাতুন।

তিনি ন্যায় বিচারের স্বার্থে মামলার আসামি মিন্টুর জামিন বাতিল ও মামলাটিকে দ্রুত বিচার আদালতে স্থানান্তরের জোর দাবি জানান।

মঙ্গলবার বিকেলে বগুড়া প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে এ দাবি জানান নিহত সাংবাদিক শিমুলের স্ত্রী নুরুন্নাহার খাতুন। 

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আসামি মিন্টু অত্যন্ত প্রভাবশালী। তার জামিন পাওয়ার ঘটনা আমি আতঙ্কিত ও উদ্বিগ্ন। শাহজাদপুরের মিরু পরিবার সিরাজগঞ্জ থেকে পাবনা হয়ে বগুড়া পর্যন্ত নানাভাবে সংযুক্ত। চাকরির কারণে আমার দুই ছেলে-মেয়েকে নিয়ে বগুড়া শহরে অবস্থান করছি আমি। এ অবস্থায় আমার ছেলে-মেয়ের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত ও অসহায় বোধ করছি।  

উচ্চ আদালতের আদেশে গত রবিবার মিন্টুর জামিন পাওয়ার তথ্য উল্লেখ করে সংবাদ সম্মেলনে নুরুন্নাহার খাতুন বলেন, জামিন পেয়েই তিনি জেলগেটে তার সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেছেন ‘চিন্তা করিস না। জামিনে ছাড়া পাইছি। ভয় নাই সবাই জামিন পাবে’।

তিনি আরো বলেন, জামিন পাওয়া আসামির আইনগত অধিকার। এ নিয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই। কিন্তু যে আসামি জামিনে বেড়িয়ে জেলগেটে এসব কথা বলতে পারেন তার জামিন কিভাবে বহাল থাকবে এটা আমার প্রশ্ন? 

মামলার সুষ্ঠু বিচার নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে নুরুন্নাহার খাতুন বলেন, আসামিপক্ষ শুরু থেকেই মামলার বিচার প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করতে নানামুখি অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এক মাসের বেশি সময় আগে আদালতে মামলার অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আদালতে এখন পর্যন্ত তা গৃহীত হয়নি।

তিনি বলেন, অভিযোগপত্র গৃহীত হলেই প্রধান আসামি হালিমুল হক মিরু শাজহাদপুর পৌরসভার মেয়র হিসেবে থাকতে পারবেন না। অসুস্থতার অজুহাতে তাকে ঢাকার হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে তিনি সেখানে বসেই কলকাঠি নাড়াচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন নুরুন্নাহার খাতুন।

লিখিত বক্তব্যে নুরুন্নাহার খাতুন আরো বলেন, এ মামলার অনেক আসামি এখনো গ্রেপ্তার হয়নি। পলাতক এসব আসামিদের নিয়েই কিছুদিন আগে মিরুর মুক্তির দাবিতে তার নিজ এলাকায় মানববন্ধনও করা হয়েছে।

আমি বিশ্বাস করি শিমুল হত্যার ন্যায় বিচার পেতে বিচার চলাকালীন এ হত্যার দায়ে অভিযুক্ত কাউকে বাইরের আলোয় আসতে দেয়া যাবে না। সবাইকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠাতে হবে। তবেই আমি ছেলে-মেয়ে নিয়ে শঙ্কামুক্ত থাকবো। পাশাপাশি ‘স্বামী হত্যার ন্যায় বিচার পাবো’ যোগ করেন নুরুন্নাহার খাতুন।
উল্লেখ্য চলতি বছরের ২ ফেব্রুয়ারি অপহৃত ছাত্রলীগ নেতা বিজয় মাহমুদকে উদ্ধার করার ঘটনায় শাহজাদপুর পৌরশহরের মনিরামপুরে মেয়র হালিমুল হক মিরু ও তার ভাইদের সঙ্গে স্থানীয় সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। সেখানে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সাংবাদিক শিমুল গুলিবিদ্ধ হন। পরে তার মৃত্যু হয়।

স্ত্রী নুরুন্নাহার খাতুন এ ঘটনায় বাদী হয়ে মেয়র মিরু ও তার ভাই মিন্টুসহ ৪০-৪২জনের নামে শাহজাদপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ছাত্রলীগ নেতা বিজয়ের চাচা এরশাদ আলী বাদী হয়ে মেয়রের ভাই মিন্টু ও পিন্টুসহ ২০-২৫জনের নামে আরেকটি মামলা করেন।

(ঢাকাটাইমস/০৬জুন/প্রতিনিধি/ইএস) 

সংবাদটি শেয়ার করুন

গণমাধ্যম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত