চাঁদপুরে নদীভাঙনের মুখে নবনির্মিত পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র

শওকত আলী, চাঁদপুর
| আপডেট : ০৮ জুন ২০১৭, ০৮:২০ | প্রকাশিত : ০৮ জুন ২০১৭, ০৮:১৯

নদীর তীর সংরক্ষণ না করে স্থাপনা নির্মাণ করায় ডাকাতিয়া নদীর ভাঙনের মুখে পড়েছে চাঁদপুরের শাহরাস্তি মডেল থানার আওতাধীন নবনির্মিত উঘারিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র।

নির্মিত নতুন ভবনের দক্ষিণ-পূর্ব অংশের প্যালাসাইডিংয়ের বাইরে প্রায় ৫০ মিটার স্থান জুড়ে মাটি ধসে পড়ছে। নদীর পানি ও স্রোত বাড়ার সঙ্গে বাড়ছে ভাঙনের পরিধি।

জরুরি ভিত্তিতে ডাকাতিয়া নদীর এ স্থানের তীর সংরক্ষণে ব্যবস্থা না নিলে নবনির্মিত পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রটি যেকোনো সময় নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাবে।

সরেজমিনে দেখা যায়, শাহরাস্তি উপজেলার চিতোষী এলাকায় ডাকাতিয়া নদীর তীর ঘেঁষে উঘারিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রটি নির্মাণ করা হয়েছে। প্রকল্পের কাজ শেষ হলেও এখনো কর্তৃপক্ষের কাছে ভবন হস্তান্তর করেনি গণপূর্ত বিভাগ।

গত কদিনে অতিবৃষ্টিতে নদীর পানি ও স্রোত বৃদ্ধি পাওয়ায় ভবনের দক্ষিণ পূর্ব অংশে প্যালাসাইডিংয়ের বাইরে বড় ধরনের ফাটল দেখা দিয়েছে এবং মাটি ধসে নদীতে ডেবে যাচ্ছে। তার কাছাকাছি আরেকটি অংশে বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় ইরি-বোরো স্কিমের লোকজন বালু-কংক্রিটের বস্তা ফেলে সাময়িক ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা করছেন। ইরি-বোরো স্কিমে নদী থেকে সেচপাম্প দিয়ে পানি উত্তোলন এবং সেচখালের পানি প্রবল বেগে নতুন ভবনের পাশেই নদীতে গড়াচ্ছে। ডাকাতিয়া নদীসংলগ্ন ওই এলাকাটি এখন ভাঙনের মুখে পড়েছে।

চিতোষী পূর্ব ইউনিয়নের বেততোলা গ্রামের বাসিন্দা আ. মান্নান (৫৫) জানান, এখানে নতুন থানা ভবন হয়েছে। পাশেই সোনাপুর সেচপাম্প। জায়গাটি নদীর টার্নিং পয়েন্ট হওয়ায় সেচপাম্প ব্যবহারের কারণে নদীর তলদেশে ব্যাপক গর্তের সৃষ্টি হয়। ফলে অস্থায়ী প্যালাসাইডিং দিয়ে ভূমি সংরক্ষণ করা সম্ভব নয়।

উঘারিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক মোশারফ হোসেন ভূঁইয়া জানান, নতুন ভবনে যাওয়ার রাস্তা নেই, সেটি নদীর কিনারে হওয়ায় ভাঙন সমস্যাও রয়েছে। বিষয়টি এসপি মহোদয় পুলিশ হেড কোয়ার্টারকে জানিয়েছেন। এখানে রাস্তা ও নদীর পাড় সংরক্ষণে দুটি কাজই করতে হবে।

চাঁদপুর গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী রিপন কুমার রায় এ প্রতিনিধিকে জানান, পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের নতুন ভবন নির্মাণ প্রকল্পে নদীতীর সংরক্ষণ কাজটি ধরা নেই। সেখানে আরসিসি রিটার্নিং দেয়াল নির্মাণের প্রস্তাব দেয়া আছে।

উঘারিয়া নতুন থানা ভবনসহ আশপাশের এলাকা নদীভাঙন থেকে রক্ষা করতে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের দাবি জানান এলাকাবাসী।

(ঢাকাটাইমস/৭জুন/মোআ)

 


    

 

 

    

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত