গফরগাঁওয়ে মধ্যরাতে বাড়ি-ঘরে হামলা

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১০ জুন ২০১৭, ২১:৩৪

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের বলদী গ্রামে মসজিদের বৈদ্যুতিক পাখা বন্ধের পর আবার চালু করা নিয়ে মসজিদের বৃদ্ধ মুসল্লি আলাউদ্দিনের সাথে প্রতিবেশী যুবক জহিরুলের কথা কাটাকাটি হয়। পরে গভীর রাতে জহিরুল দলবল নিয়ে বৃদ্ধ আলাউদ্দিনের বাড়ি-ঘরে হামলা চালিয়ে বসত বাড়ির দরজা-জানালা কুপিয়ে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত করে। এ সময় বাধা দেয়ায় আলাউদ্দিনের ছেলে রিয়াদ মিয়াকে মাথায় কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর জখম করে।

ঘটনাটি ঘটে গত বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার গভীর রাতে। এ ঘটনায় শনিবার আলাউদ্দিন বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে গফরগাঁও থানায় একটি অভিযোগ করেছেন।

দায়েরকৃত অভিযোগ ও স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার তারাবির নামাজ শেষে মসজিদে মুসল্লি থাকা অবস্থায় বলদী গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে জহিরুল ইসলাম মসজিদের বৈদ্যুতিক পাখা বন্ধ করে দেন। পরে একই বৃদ্ধ মুসল্লি আলাউদ্দিন গরমের কথা চিন্তা করে ফের পাখা চালিয়ে দেন। কেন আবার পাখা চালানো হলো তা নিয়ে যুবক জহিরুলের সাথে বৃদ্ধ আলাউদ্দিনের কথা কাটাকাটি হয়। পরে গভীর রাতে জহিরুল তার লোকজন নিয়ে ওই বৃদ্ধের বাড়িতে গিয়ে তার বসত ঘরের দরজা-জানালা কুপিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করে। এ সময় ওই বৃদ্ধের ছেলে রিয়াদকেও কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে তারা। পরে গত শুক্রবার মধ্যরাতে আবারো জহিরুল লোকজন নিয়ে বৃদ্ধ আলাউদ্দিনের বাড়ির টিনের চালা ও বেড়ায় ভাঙচুরের চেষ্টা চালায় ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে বলে অভিযোগ করেন বৃদ্ধ আলাউদ্দিন।

তবে অভিযুক্ত জহিরুল শুক্রবার রাতের ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে উত্তেজিত লোকজন তার বাড়িতে হানা দিয়ে দরজা-জানালায় দা দিয়ে সামান্য আঘাত করে। এ সময় দুয়েকটি দরজা সামান্য কেটে যায়।

এ ব্যাপারে গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একে এম মাহবুবুল আলম বলেন, এ ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(ঢাকাটাইমস/১০জুন/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত