সিংড়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র কেড়ে নেয়ার অভিযোগ

নাটোর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ জুন ২০১৭, ২১:২৬

নাটোরের সিংড়ায় ছাতারদিঘী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপ-নির্বাচনের এক সংখ্যালঘু স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ কর্মীরা কেড়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মনোনয়নপত্র কেড়ে নিয়ে আটকে রাখা মোটর সাইকেল ফেরত দিয়ে এলাকা থেকে তাড়িয়ে দেয়া হয় স্বতন্ত্র প্রার্থী মলয় কুমার সরকারের ভাই বিতান সরকারসহ দুই সমর্থককে। তবে এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন ও মিথ্যাচার বলে দাবি করেছেন ছাত্রলীগের এক সাবেক নেতা। রবিবার সিংড়া উপজেলা কার্যালয় চত্বর এলাকায় ঘটে এ ঘটনা।

মলয় সরকারের সমর্থক বাচ্চু সরকার অভিযোগ করে জানান, সোমবার মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। রবিবার সকালে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মলয় কুমার সরকারের পক্ষে তিনি ও মলয় সরকারের ভাই বিতান কুমার সরকার সিংড়া রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে একটি মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেন। এ সময় স্থানীয় ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের কর্মীরা তাদের আটক করে এবং মোটর সাইকেল কেড়ে নেয়। তারা মলয় সরকারের নামে ওঠানো মনোনয়নপত্র তাদের কাছে জমা দিতে বলে। অন্যথায় মোটর সাইকেল ফেরত না দেয়ার কথা বলে। এসময় মনোনয়নপত্র বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়ার কথা বললে মোটর সাইকেলসহ বিতানকে আটকে রেখে আমাকে ছেড়ে দেয় উত্তোলনকৃত মনোনয়নপত্র আনার জন্য। এবিষয়ে বিভিন্নজনের সঙ্গে যোগাযোগ করে কোনো সহযোগিতা পাওয়া যায়নি। উপরন্তু জীবনের প্রতি হুমকি হয়ে দেখা দেয়। দীর্ঘ প্রায় দুই ঘণ্টা পর তারা তাদের কাছে থেকে মনোনয়নপত্র কেড়ে নিয়ে আটকে রাখা মোটর সাইকেল ধরিয়ে দিয়ে এলাকা থেকে তাড়িয়ে দেয়। ছাত্রলীগের সাবেক উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান লিখনের নেতৃত্বে এই ঘটনা ঘটানো হয় বলে দাবি তাদের।

মোবাইলফোনে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আনিসুর রহমান লিখনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনাটি সম্পর্কে কিছুই জানেন না বলে জানান। ঘটনাটিকে মিথ্যাচার দাবি করে বলেন, তিনিসহ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ওই সময় স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের উপস্থিতিতে উপজেলা জলমহাল কমিটির সভায় ছিলেন। ঘটনাটি তিনি এই প্রতিবেদকের মাধ্যমেই জানতে পারলেন বলে বলেন।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেনও ঘটনা সম্পর্কে কিছুই জানেন না বলে জানান। তিনি তার এলাকায় নির্বাচনী প্রচারে রয়েছেন বলে জানান।

সিংড়া থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, মনোনয়নপত্র বা মোটরসাইকেল কেড়ে নেয়া কিংবা মারপিট করার বিষয়ে কোনো অভিযোগ করেননি কেউ। তবে মনোনয়নপত্র নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডার কথা শুনেছেন বলে জানান।

স্থানীয় নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা যায়, গত ৫ মে সিংড়া উপজেলঅর ছাতারদিঘী ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান প্রদীপ কুমার সরকারের মৃত্যু হলে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। ১২ জুন মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। আগামী ১৩ জুলাই চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

(ঢাকাটাইমস/১১জুন/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত