কিস্তি বকেয়া পড়ায় বেদে পরিবারের টিভি-আসবাব জব্দ

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৭, ১৯:২৬

দুই সপ্তাহের কিস্তি ১০০০ টাকা বকেয়া পড়ায় রাতের বেলা এক বেদে পরিবারের টিভি ও আসবাপত্র নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে পল্লি মঙ্গল কর্মসূচি নামের একটি ঋণদাতা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে।

মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার চরকিশোরগঞ্জ (মোল্লাপাড়া) এলাকায় গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
পরিবারটির অভিযোগ, পল্লি মঙ্গল কর্মসূচির কর্মকর্তা কিছু লোক নিয়ে ওই রাতে বেদে পরিবারের ঘুম ভাঙিয়ে ঘরে ঢোকেন। এরপর ঘরের জিনিসপত্র উলটপালট করেন এবং টিভি ও আসবাবপত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তারা কোনো সময় দেয়নি বেদে পরিবারকে।  

ভুক্তভোগী জামাল বেপারী জানান, প্রতিষ্ঠানটি থেকে কিছু টাকা ঋণ নিয়ে তিনি মাছ ধরার জাল ও বড়শি কেনেন। মাছ বিক্রি করে সংসার ও মেয়ের পড়াশোনার খরচ শেষে সপ্তাহে ৫০০ টাকা কিস্তি পরিশোধ করে আসছেন। সর্বশেষ কিস্তি দেন  গত ৪ জুন। কিন্তু গত কয়েক দিনে টানা বৃষ্টির কারণে নদীতে যেতে না পারায় দুই সপ্তাহ কিস্তি বাকি পড়েছে তার।

বকেয়া কিস্তি পরের কিস্তির সঙ্গে পরিশোধ করে দেবেন জানালেও পল্লি মঙ্গলের কর্মকর্তা তা আমলে নেননি বলে জানান জামাল বেপারি।

তিনি বলেন, ‘আমি স্যারদের বলেছিলাম আমি পরের সপ্তাহে ঠিকমতো কিস্তি এবং দুই সপ্তাহের বকেয়া টাকা পরিশোধ করব। কিন্তু তারা আমাকে ও আমার পরিবারকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে চলে যান।’

পরে মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে কিছু স্থানীয় লোক নিয়ে কর্মকর্তারা তার বাড়িতে আসে জানিয়ে জামাল বেপারি বলেন, ‘তখন আমরা ঘুমিয়ে ছিলাম। তারা আমাদের ঘুম থেকে ডেকে তুলে ঘরে ঢুকেই টিভির তার ছিঁড়ে ফেলে এবং জিনিসপত্র ভাঙচুর করে কিছু আসবাবপত্র ও টিভি নিয়ে যায়।’

অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে পল্লি মঙ্গল কর্মসূচির সঞ্চয় ও ঋণদাতা প্রতিষ্ঠানের মুন্সীগঞ্জ অফিসের ম্যানেজার জাহিদুল ইসলাম টিভি ও আসবাব নেয়ার কথা স্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘জামাল হোসেন গত দুই সপ্তাহ কিস্তি পরিশোধ করেনি। তাই আমাদের আইন অনুযায়ী ঋণের টাকার সমপরিমাণ সম্পদ তার ঘর থেকে আনা হয়েছে।’ জিনিসগুলো তাদের একজনের জিম্মায় রয়েছে বলে জানান তিনি।

(ঢাকাটাইমস/১৪জুন/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত