ঈদে কোনো নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই: র‌্যাব ডিজি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৫ জুন ২০১৭, ১৫:১৮ | প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০১৭, ১৪:০৪

ঈদকে ঘিরে দেশে নিরাপত্তার কোনো ঝুঁকি নেই বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ। বলেছেন, ঈদকে ঘিরে সারাদেশে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। নগরীর গুরুত্বপূর্ণ শপিং কমপ্লেক্সগুলোর সামনে নেয়া হয়েছে বিশেষ নিরাপত্তা। বসানো হয়েছে অস্থায়ী ক্যাম্প।

বৃহস্পতিবার ঈদের নিরাপত্তায় কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের সার্বিক পরিস্থিতি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এসব কথা বলেন।

ঈদে ঘরমুখী যাত্রীদের জন্য অগ্রিম টিকিট দেয়া হচ্ছে ১২ জুন থেকে, চলবে ১৬ জুন পর্যন্ত।

বেনজির আহমেদ বলেন, ‘ঈদকে ঘিরে গুরুত্বপূর্ণ সব স্থানে নিরাপত্তা ক্যাম্প করা হয়েছে, বিশেষ করে রেলওয়ে স্টেশনে, বাস স্টেশনে, শপিং সেন্টার, লঞ্চঘাটে অস্থায়ী নিরাপত্তা ক্যাম্প রয়েছে। এছাড়া নগরবাসীর নিরাপত্তায় রয়েছে টহল ফোর্স।

র‌্যাবপ্রধান বলেন, ‘এবার কমলাপুরে অগ্রিম টিকিট দেয়া অনেকটা তাৎপর্যপূর্ণ। এখানে যারা টিকিট নিতে এসেছেন তাদের সঙ্গে কথা বলেছি, কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। রেল স্টেশনে কালোবাজারি, চোরাকারবারি যাতে না হয় সেদিকে সজাগ রয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‌্যাব)।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের মহাপরিচালক বলেন, ‘ঈদের ছুটির মধ্যে নগরীর আবাসিক এলাকাগুলোতে থাকবে আমাদের বিশেষ নজরদারি। র‌্যাবের টহল ফোর্স নিয়োজিত থাকবে। সবার সমর্থন ও সহযোগিতা আমরা কামনা করছি, আশা করি যেকোনো বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি এড়াতে পারবো।’

সাংবাদিকদের অন্য এক প্রশ্নের জবাবে বেনজির আহমেদ বলেন, ‘র‌্যাবের হচ্ছে একটা স্মল ফোর্স, মাত্র এগার হাজার সদস্য নিয়ে আমাদের দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। প্রত্যেক স্টেশনে অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা সম্ভব নয়, তবে নিরাপত্তার জন্যে আমাদের টহল ফোর্স থাকবে, রেলওয়ে পুলিশ থাকবে, জেলা পুলিশ দায়িত্ব পালন করবে। চারটি ভিন্ন বাহিনী নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকবে।’

নগরবাসীও এখন নিরাপত্তার বিষয়ে অনেক সচেতন জানিয়ে র‌্যাবের মহাপরিচালক বলেন, ঈদে নগরবাসীর নিরাপত্তায় অস্থায়ী ক্যাম্পগুলোর পাশাপাশি, টহল জোরদার করা হবে। পাশাপাশি দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলোতেও থাকবে অস্থায়ী ক্যাম্পসহ টহল ফোর্স।’

পয়লা জুলাই হলি আর্টিজান ঘটনায় কোনো নিরাপত্তার ঝুঁকি আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে বেনজির আহমেদ বলেন, ‘আসলে আমরা কোনো বিশেষ দিবসকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তা চিন্তা করি না। কারণ প্রতিটি জীবনই গুরুত্বপূর্ণ, প্রতিটি জীবনই মূল্যবান। প্রতিটি জীবনকে চিন্তা করেই আমরা নিরাপত্তার ব্যাপার চিন্তা করি। যারা এ জঙ্গিবাদী গোষ্ঠীর সাথে জড়িত, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ক্রমাগত সাঁড়াশি আক্রমণে কোনো ঠাসা হয়ে পড়েছে। প্রতিদিনই খবরের কাগজে দেখি, কোনো না কোনো বাহিনী হাতে ধরা পড়ছে জঙ্গিরা।’

বেনজির আহমেদ বলেন, ‘জঙ্গি দমনে আত্মতুষ্টির কিছুই নেই, অহংকারের কিছু নেই। সব আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ক্রমাগত আক্রমণে তাদের শক্তি ক্ষয় হয়ে যাচ্ছে। তাদের নির্মূল করার জন্য সব বাহিনীকে কাজ করে যেতে হবে। আমাদের লক্ষ্য হলো বাংলাদেশে ৩৬৫ দিনকেই নিরাপদ রাখা।’

(ঢাকাটা্ইমস/১৫জুন/জিএম/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত