ঘরে বসে দুর্গতদের জন্য খালেদার মায়াকান্না: কাদের

কুমিল্লা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৬ জুন ২০১৭, ১৯:১২ | প্রকাশিত : ১৬ জুন ২০১৭, ১৫:৫৭

পাহাড় ধসে প্রাণহানির মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদেশ সফরে যাওয়ায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সমালোচনার জবাব দিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, দুর্গতদের জন্য সরকার যখন পুরোদমে উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতা চালাচ্ছে, তখন খালেদা জিয়া ঘরে বসে সরকারের সমালোচনা আর তাদের জন্য মায়াকান্না করছেন।

শুক্রবার কুমিল্লা দাউদাকান্দিতে মেঘনা-গোমতী সেতু টোলপ্লাজা অনলাইন ওয়েববেজড এক্সেল লোড ওয়েভিং স্কেল সিস্টেম বর্ধিতকরণ প্রকল্পের উদ্বোধন কালে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনা বিদেশ সফরে থেকেও পুরো ঘটনার তদারকি করছেন এবং দুর্গতদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্দেশ দিয়েছেন।’

গত মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রাম, রাঙ্গামাটি, বান্দরবানে পাহাড় ধসে ব্যাপক প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। একই দিন পূর্বনির্ধারিত সুইডেন সফরে রওয়ানা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

যুক্তরাজ্যের পথে প্রধানমন্ত্রী রওয়ানা হওয়ার পর ব্যাপক প্রাণহানির খবর জানতে পারেন। এরপর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে তিনি সর্বাত্মক ত্রাণ তৎপরতা চালানোর নির্দেশ দেন। আর বুধবার তার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল উপদ্রুত এলাকায় যায়।

তবে বৃহস্পতিবার খালেদা জিয়া এক ইফতার মাহফিলে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এই সফরে যাওয়া উচিত হয়নি। তিনি বলেন, ‘পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড় ধসে ১৫৫ জন মারা গেছেন। আর্মির লোকজনও সেখানে মারা গেছেন। এছাড়া এখনো অনেকে নিখোঁজ রয়েছে। আর আওয়ামী লীগ নেত্রী এখন প্লেজার ট্রিপে আছেন। আনন্দ ভ্রমণে আছেন।’

দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করছেন ওবায়দুল কাদের

বিএনপি নেত্রীর এই বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের কুমিল্লায় বলেন, ‘বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া দেশে অবস্থান করলেও তিনি বা তাঁর দলের নেতারা দুর্গতদের কোন প্রকার খোঁজ খবর নেননি। অথচ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুইডেনে অবস্থান করলেও এই তথ্য প্রযুক্তির যুগে তিনি সেখান থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার খোঁজ খবর রাখছেন এবং প্রতিদিনের ত্রাণ তৎপরতা মনিটরিং করছেন। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিবের নেতৃত্বে একটি টিম সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করছে এবং আমাদের সেনাবাহিনী উদ্ধার তৎপরতায় প্রাণপণ চেষ্টা চালাচ্ছেন।’

হাইওয়ে পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রহমত উল্লাহ, দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল আমীন, দাউদকান্দি সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মহিদুল ইসলাম, দাউদকান্দি পৌর মেয়র নাঈম ইউসূফ সেইন, দাউদকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমানসহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকাটাইমস/১৬জুন/প্রতিনিধি/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত