পাবনায় শিশুকে পিটিয়ে হত্যা, সন্দেহভাজন আটক

পাবনা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ জুন ২০১৭, ১০:২২
ফাইল ছবি

পাবনায় দুই ব্যক্তির মধ্যে ঝগড়ার জেরে প্রাণ দিল এক জনের আট বছর বয়সী ছেলে শিশু। হত্যার পর শিশুটির মরদেহ ঘরের মেঝেতে পুঁতে রাখার ঘটনাও ঘটে। পরে রাতের আঁধারে সেটি বাইরে ফেলে দেয়ার চেষ্টার সময় সন্দেহভাজন খুনিকে হাতেনাতে ধরে পুলিশে দেয় স্থানীয়রা।

ঘটনাটি ঘটেছে পাবনার সুজানগর উপজেলার আমিনপুর গ্রামে। শনিবার বিকালে শিশুটিকে হত্যার পর মরদেহ উদ্ধার হয় গভীর রাতে।

খুন হওয়া শিশুটির নাম হাফিজুল ইসলাম। পুলিশ জানায়, পাওনা টাকা নিয়ে তার বাবা রজব আলীর সঙ্গে আটক দুলাল মল্লিকের ঝগড়া হয়েছিল শনিবার। পরে রজব আলীর ছেলে হাফিজুরকে ঘরে ধরে নিয়ে পেটান দুলাল মল্লিক ও তার ছেলে সেলিম মল্লিক। ঘটনাস্থলেই মারা যায় শিশুটি। আর কেউ যেন বিষয়টি জানতে না পারে সে জন্য ঘরের মাটি খুঁড়ে পুঁতে রাখা হয় হাফিজুরকে।

আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)তাজুল হুদা জানান, বিকাল থেকে হাফিজুলকে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করে তার স্বজনরা। এর মধ্যে শনিবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে পুঁতে রাখা শিশুর মরদেহ তুলে বাড়ির বাইরে নিয়ে ফেলে দেয়ার সময় দুলাল মল্লিক ও তার স্ত্রীকে হাতেনাতে আটক করে গণধোলাই দেয় স্থানীয় জনতা। এসময় তাদের ছেলে সেলিম মল্লিক পালিয়ে যায়।

পুলিশ কর্মকর্তা জানান, খবর পেয়ে আমিনপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুলাল মল্লিককে আটক এবং শিশু হাফিজুলের মরদেহ উদ্ধার করে।

রবিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য হাফিজুরের মরদেহ পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ঢাকাটাইমস/১৮জুন/প্রতিনিধি/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত