ডাকলে মশা নিধনে বাড়ির ভেতর যাবে ডিসিসির কর্মীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ জুলাই ২০১৭, ১৯:২৮

চিকুনগুনিয়ার বাহন এডিস মশা বাড়ির ভেতরে জন্ম নেয়। তাই এই মশা নিধনে নগরবাসীকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন। তিনি বলেছেন, বাড়ির মালিকরা ডাকলে সিটি করপোরেশনের মশা নিধনে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মীরা বাড়ির ভেতরে গিয়ে ওষুধ ছিটাবে।

শুক্রবার নগর ভবনে চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে অঞ্চল-৪ এর ক্রাশ প্রোগ্রাম উদ্বোধনকালে মেয়র এসব কথা বলেন।

সাঈদ খোকন বলেন, ‘চিকুনগুনিয়ায় আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। রোগ আসতেই পারে, এই সংকট আমরা সকলে মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবেলা করা সম্ভব।’

এ সময় দক্ষিণ সিটি এলাকার সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন সবাই যেন একে অপরকে সচেতন করেন।

গত কয়েক মাস ধরে ঢাকায় এডিস মশাবাহিত রোগ চিকুনগুনিয়া ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ছে। এই অবস্থায় সিটি করপোরেশনের মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে। আর এমন পরিস্থিতিতে একই সঙ্গে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র সংবাদ সম্মেলন ডাকেন।

ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র তার সংবাদ সম্মেলনে বলেন, বাড়ির ভেতরে গিয়ে এডিস মশা নিধন সম্ভব নয়। কারণ, এতে সমস্যা তৈরি হতে পারে।

এই সংবাদ সম্মেলনে বিশেষজ্ঞরা জানান, বাড়ির ভেতরের এসি ও ফ্রিজের পানি জমার ট্রে, ফুলের টব, সানশেড ও ছাদ, ডাবের খোসা, গাড়ির পরিত্যক্ত টায়ার, নির্মাণাধীন ভবনের চৌবাচ্চা, ড্রামে জমে থাকা পরিষ্কার পানিতে এডিস মশা ডিম পাড়ে ও বংশ বিস্তার করে। আর বড় হয়ে এই মশার মাধ্যমে ভাইরাস মানব দেহে ছড়ায়। নর্দমার পানিতে কখনো এডিস মশা জন্মায় না।

অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘চিকুনগুনিয়ার উৎপাদনস্থল ঘরের ভেতরে, ফুলের টবে, চৌবাচ্চাগুলো পরিস্কার করা নাগরিকদের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব। নিজ দায়িত্বে এগুলো পরিস্কার করার পাশাপাশি মশক নিধন কর্মীদের ডাকলেও তারা যেতে বাধ্য থাকবে।’

চিকুনগুনিয়া শুধু বাংলাদেশে নয় ভারত, পাকিস্তান ও নেপালেও ছড়িয়েছে জানিয়ে মেয়র খোকন বলেন, সিঙ্গাপুর গত দুই সপ্তাহ  আগে ডেঙ্গুর ভেকশিনেশন বাজারজাত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। চিকুনগুনিয়ার জন্য ট্রয়ালের কাজ চলছে। আশা করি দ্রুতই তারা সফল হবে।  তখন আমরাও এটা দেশে নিয়ে আসবো।’

পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের উদ্যোগে চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে নাগরিকদের সচেতন করতে লিফলেট বিতরণ কার‌্যক্রম ও মশক নিধন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন মেয়র খোকন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মশক নিধন কাজে নিয়োজিত ৩০৩ জন স্প্রে ম্যান ১৪৮টি ফগার এবং ২৭১ টি হস্তচালিত মেশিন নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

ঢাকাটাইমস/১৪জুলাই/জিএম/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত