অতি উৎসাহী দুই-চারজনের জন্য কি ছাত্রলীগের সম্মেলন?

সাকিব হাসান সুইম
| আপডেট : ১২ আগস্ট ২০১৭, ১৫:১৪ | প্রকাশিত : ১২ আগস্ট ২০১৭, ০৮:৩৩

প্রিয় সহযোদ্ধারা ছাত্রলীগ নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র হচ্ছে তা পরিষ্কার। আপনারা জাতির পিতার নিজ হাতে গড়া ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নেতাকর্মী, আপনাদের মনোবল আরো মজবুত করে জামায়াত শিবিরের বিষদাঁত ভাঙতে হবে। আর  যারা আমাদের মাঝে লুকিয়ে থেকে আমাদের অভিভাবকদের নিয়ে নোংরামি করে ফাটল ধরানোর চেষ্টা করছে এদের খুঁজে বের করতে হবে তার চেষ্টা আমরা করছি। ওরা জানে ছাত্রলীগের ফাটল মানে আওয়ামী লীগ সরকারের ক্ষতি আর  ওদের চাওয়া এটা করে আওয়ামী লীগের ক্ষতি করা।

গত ৭ আগস্ট ছাত্রী সমাবেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘ছাত্রলীগ বর্তমান সময়ে অনেক ভালো কাজ করছে, সকল বিশ্ববিদ্যালয়, জেলা এবং বিভিন্ন ইউনিটের সম্মেলন সম্পূর্ন করে যথাসময়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।’

আমরা ছাত্রলীগ একটি পরিবার। আমাদের চলার পথে হয়তো ভুল থাকতে পারে। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর ছাত্রলীগের আদর্শে কোন ভুল নেই। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে আমাদের কাজ এখন একটাই আর তা হলো রাজপথে থেকে বঙ্গবন্ধু কন্যার নির্দেশ বাস্তবায়ন এবং সরকারের উন্নয়নের চিত্র তৃণমূল পর্যায়ে উপস্থাপন।

স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তিরা জানে বঙ্গবন্ধু কন্যাকে দূর্বল করতে হলে ছাত্রলীগকে দূর্বল করতে হবে। কিন্তু তারা ভাল করে জানে বর্তমান ছাত্রলীগের সাংগঠনিক কাঠামো এতো মজবুত যে, কোন হুমকি বা বক্তৃতা দিয়ে একে কাবু করা যাবে না। এমনকি রাজপথে ছাত্রলীগ কে মোকাবেলা করার অবস্থা তাদের নেই। তাই মিথ্যাচার করতে হবে, বিভ্রান্তি ছড়াতে হবে। কারণ, বাঙালি বিকৃত সংবাদ পড়ে বেশি, এমনকি দ্রুত বিশ্বাসও  করে। আর এই বিভ্রান্তি ছড়াতে সুকৌশলে ব্যবহার করা হচ্ছে ছাত্রলীগের কিছু মোস্তাকরূপী কুলাঙ্গারকে,যারা অদৃশ্য মূলার মোহে অন্ধ হয়ে গেছে। এখনি সময় এদের বিরুদ্ধে কঠোর হওয়ার।

২৭ তম সম্মেলনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমানে আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছিলেন ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ যেমন বীরসেনানির জন্ম হয়, তেমনি বিশ্বাসঘাতকেরও জন্ম হয়।’

তাই সম্মানিত সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের নিকট আমার অনুরোধ, অনেক নমনীয়তা হয়েছে আর না। সংগঠনের শৃঙ্খলার স্বার্থে কঠিন রূপটি প্রকাশ করুন। কারণ আজকের যে মিথ্যাচার, যে বিভ্রান্তি তা কোন ব্যক্তিকে উদ্দেশ্য করে না, সংগঠন বিরোধী ও দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা মাত্র....।

বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এর নামে কেউ মনগড়া মিথ্যা কিছু বললে সেটা মেনে নেয়ার মত নয়।

যাই হোক স্বপ্ন দেখা ভালো তবে স্বপ্নেরও দোষ থাকে। জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার যেদিন প্রয়োজন মনে হবে সেদিন নতুন সম্মেলন দিয়ে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন। আর  সেটা হওয়ার আগেই আপনারা যে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছেন তা বাদ দেন।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন ভাইয়ের নেতৃত্বে আমরা ছাত্রলীগের প্রতিটি নেতা-কর্মীই ঐক্যবদ্ধ আছি এবং থাকব।

লেখক: সহ-সভাপতি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ

সংবাদটি শেয়ার করুন

মতামত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত