কারিনা হবেন ‘মধুবালা’

তাজরিন জাহান তারিন, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১২ আগস্ট ২০১৭, ১২:৪৪ | প্রকাশিত : ১২ আগস্ট ২০১৭, ১২:৪০

ক্লাসিক হিন্দি সিনেমার হৃদয় নাড়ানো অভিনেত্রী মধুবালা। পঞ্চাশের দশকে তিনি ছিলেন পর্দা কাঁপানো অভিনেত্রী। প্রথম হিন্দি সিনেমার অভিনেত্রী হিসেবে নাম লিখিয়েছিলেন হলিউডেও। প্রচ্ছদ হয়েছিলেন আমেরিকার ম্যাগাজিন ‘থিয়েটার আর্টস’য়ে। মৃত্যুর পরে আজও ভক্তদের মনে আসন গেড়ে আছেন তিনি। সম্প্রতি তাকে সম্মান জানিয়েছে মাদাম তুসোর জাদুঘরও। তার মোমের মূর্তি ঠাই পেয়েছে মাদাম তুসোতে। সেখানে তার মূর্তি উন্মোচন কালে ছোট বোন মাধুর জানিয়েছেন মধুবালার বায়োপিক তৈরি হলে তার প্রথম পছন্দ কারিনা কাপুর।

মাধুর ব্রিজ বলেন বর্তমান সময়ে সব অভিনেত্রীই অনেক সুন্দর। কিন্তু যদি মধুবালাকে নিয়ে ছবি তৈরি হয় তবে তিনি চান কারিনা কাপুর যেন তাতে অভিনয় করেন। তিনি বলেন, ‘একটা সময় ছিল যখন আমি চাইতাম মাধুরী দীক্ষিত যেন এই চরিত্রে অভিনয় করেন। কিন্তু এখন আমি কারিনা কাপুরকে চাই। কারিনার ঠিক একই সাবলীলতা  রয়েছে যা একসময় মধুবালার ছিল। তিনি একজন সুন্দর অভিনেত্রীও’। মাদাম তুসো জাদুঘরে মধুবালার মোমের মূর্তি উদ্বোধন কালে তিনি এ কথা বলেন।

বিখ্যাত এই অভিনেত্রী ঘরেও কি খোলা মেলা ছিলেন পর্দার মত? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘মধুবালা ঘরে একদম সাদাসিধে ছিলেন। সে আমাদের বড় ছিল কিন্তু কখনও খবরদারি করতেন না। তিনি আমাদের সবাইকেই সিনেমায় আসার জন্য সাহস দিতেন।’

১৯৩৩ সালে মধুবালা জন্মগ্রহণ করেন। তাকে হিন্দি সিনেমা ইতিহাসে সেরা অভিনেত্রীর একজন হিসেবে বিবেচনা করা হয়। ১৯৪২ সাল থেকে ১৯৬২ সাল পর্যন্ত চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।মহল (১৯৪৯), অমর(১৯৫৪), মিস্টার অ্যান্ড মিসেস ৫৫ (১৯৫৫), মুঘল-ই আজম (১৯৬০), বারসাত কি রাত (১৯৬০) তার উল্লেখযোগ্য ছবি। ১৯৬৯ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি এই বরেণ্য অভিনেত্রী মৃত্যু বরণ করেন।

বর্তমানের অভিনেত্রীদের কোন একটি জিনিস  এই অভিনেত্রীর কাছ থেকে শেখা উচিত?এমন প্রশ্নের জবাবে মাধুর বলেন, ‘একটি জিনিস এই সময়ের অভিনেত্রীরা মধুবালার কাছ থেকে শিখতে পারেন যে, একটি মেয়ে কতটা সাহসের সাথে লড়তে পারে। তিনি জানতেন যে আর মাত্র দুই বছর তিনি বাঁচবেন। কিন্তু তিনি কখনো আশা ছাড়েননি। তিনি সব সময় ভাবতেন তিনি শিগগির সুস্থ হয়ে যাবেন তিনি তার পুরনো জীবনে ফিরে জাবেন এবং নতুন করে আবার কাজ শুরু করবেন।’

আরো যোগ করে মাধুর বলেন, ‘বর্তমান সময়ের অভিনেত্রীরা খুবই সফল কিন্তু মধুবালার কাছ থেকে তাদের ধৈর্যশীলতা এবং সাহসী হতে  শেখা উচিত।’

মধুবালার মোমের মূর্তিটি তার বিখ্যাত ছবি ‘মুঘল-ই আজম’ এর ‘আনারকলি’ চরিত্র থেকে নেয়া হয়েছে।

ঢাকাটাইমস/১১আগস্ট/টিজেটি/কেএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত