১২ হতদরিদ্রের মুখে হাসির ঝিলিক

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১২ আগস্ট ২০১৭, ১৯:০২

রাজধানীর কড়াইল ও সততলা বস্তির হতদরিদ্র ১২ ব্যক্তির কাছে আজকের দিনটা একটু অন্যরকম। কারণ তারা কষ্টেভরা জীবনে পাশে পেয়েছেন একজন তরুণকে। যে কি না একজন  বড়মাপের ব্যবসায়ী হলেও চালচলন কিছুটা সাধারণ মানুষের মতো। চেষ্টা করেন দুঃখ দুর্দশাগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর।

এবার আবেদ মনসুর নামের এই তরুণ দাঁড়ালেন কড়াইল ও সততলা বস্তির হতদরিদ্র ১২ ব্যক্তির পাশে। তাদের হাতে তুলে দিলেন ১২টি রিকশা।

ভিনাইল ওয়ার্ল্ড গ্রুপের প্রধান আবেদ মনসুর শনিবার বস্তিবাসী এই মানুষগুলোর হাতে রিকশা তুলে দেন। নিজস্ব অর্থায়নে পরিচালিত অলাভজনক সংগঠন ‘রিকভার’ থেকে বিনা পয়সায় তুলে দেন রিকশাগুলো।

সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেদ মনসুর ‘পাগলা’ নামে পরিচিত! শুধু কী নামেই পাগলা? সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ হিসেবে এমন সব কাজকর্ম করে তার ‘পাগলা’ নামের যথার্থতাও দেখিয়েছেন তিনি!

কিছুদিন আগে রাজধানীর এয়ারপোর্ট রোডের আধুনিকায়ন ও সৌন্দর্যবর্ধনের কাজে অংশ নেয়ার মধ্য দিয়ে আলোচনায় আসে ডিভাইন গ্রুপ। তবে এই সড়কে গাছ কেটে বনসাই লাগানোর কারণে বেশ সমালোচনাও হয়। যে কারণে ডিভাইন গ্রুপের প্রধান বেশ ক্ষুব্ধ।

রিক্সা পেয়ে সাততালা বস্তির আব্দুর রহিম আনন্দে কেঁদেই ফেললেন। অনুভূতি প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘দ্যাশের সব বড়লোক আর ন্যাতারা যদি এইবাপ জানের মতো পাগলা অইত! মাইয়া বিয়্যা দেওনের পর কামের লাইগ্যা নানান জায়গায় ঘোরনেরপর মানুষের লাথি উষ্টা খাইছি। এ্যহন নিজের রিক্সা চালামু, নিজে ট্যাহা কামামু, কওনের কেউ নাই।’

এমন সামাজিক কর্মকাণ্ডের বিষয়ে আবেদ মনসুর বলেন, ‘জীবনতো একটাই, আমি মানুষের মাঝে বেঁচে থাকতে চাই; মৃত্যুর পরও মানুষ যেন আমার কথা মনে রাখে।’

(ঢাকাটাইমস/১২আগস্ট/বিইউ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত