ভাবীকে ধর্ষণ: অবশেষে বিয়ে

ব্যুরো প্রধান, ময়মনসিংহ
 | প্রকাশিত : ১২ আগস্ট ২০১৭, ২৩:৪১

অবৈধ সম্পর্কের পরিণতিতে বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়নে পশ্চিম নন্দীগ্রামে।

ওই গ্রামের কারখানা শ্রমিক বয়স ত্রিশের কোটার এক বিধবা নারী  অবৈধ গর্ভপাতের পর মৃত নবজাতককে কবর দিলে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। গর্ভপাতের কারণে প্রচুর রক্তক্ষণে ওই নারী এখনও অসুস্থ। অবস্থান করছেন নিজ বাড়িতেই।

ঘটনাটি জানাজানি হলে এ নিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে চলে নানা গুঞ্জন। অবশেষে শুক্রবার সকালে এ ঘটনার জন্য দায়ী দেবরের সাথে ওই নারীর বিয়ে সম্পন্নের মাধ্যমে এ গুঞ্জনের অবসানও হয়।

ডৌহাখলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহিদুল হক সরকার জানান, আমাদের কি-ই বা করার আছে। তাই সামাজিকভাবে বিয়ে দেয়া হয়েছে।

বিধবা এ নারীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনিও স্বীকার করে বলেন, প্রতিবেশী দুলাল মিয়ার ছেলে সম্পর্কে তার দেবর বাচ্চু মিয়া এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে। এক সন্তানের পিতা বাচ্চু তাকে ৮ মাস আগে নিজ ঘরে তাকে ধর্ষণ করে। এরপর কিছু বুঝে ওঠার আগেই অন্তস্বত্ত্বা হয়ে পড়েন। পরে বাচ্চুর যোগসাজশে প্ররোচণায় বুধবার গ্রাম্য চিকিৎসার মাধ্যমে নিজ বাড়িতে তার গর্ভপাত করানো হয়। একটি মৃত সন্তান প্রসব করেন তিনি।

গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার আহাম্মদ বলেন, ঘটনায় থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ করেননি।

(ঢাকাটাইমস/১২আগস্ট/এমডি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত