গৃহবধূকে ধর্ষণে বাধা দেয়ায় হাত ভাঙল স্বামীর

শরীয়তপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২০ আগস্ট ২০১৭, ২২:৫৬

জেলার গোসাইরহাট উপজেলার আলাওলপুর ইউনিয়নের চরজালালপুর অলিল সরদারকান্দি গ্রামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা পড়ে শিপন বেপারী নামে এক লম্পট। নিজেকে রক্ষার জন্য সে চোর চোর বলে চিৎকার দিলে তার আত্মীয় স্বজনেরা এসে ধর্ষিতার স্বামীকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা নেয়নি বলে জানিয়েছে ধর্ষিতার স্বামী।

পুলিশ বলছে, মৌখিকভাবে জানিয়েছে- তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে। লিখিত কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা গেছে, শরীয়তপুর জেলার গোসাইরহাট উপজেলার চরজালালপুর গ্রামের এক গৃহবধূ প্রতিদিনের ন্যায় শনিবার রাতে খাবার খেয়ে নিজেদের দোচালা টিনের ঘরের দরজায় পিড়ি দিয়ে আটকে রেখে শুইয়ে থাকে। তার দিনমজুর স্বামী ঘটনার সময় পাশের চর জালালপুর পুরান বাজারে ছিলেন। এ ফাঁকে পার্শ্ববর্তী শিপন বেপারী বিউটির ঘরে ঢুকে তাকে মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে। এ সময় বিউটির চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে শিপনকে আটকে রাখে। এ ফাঁকে বিউটির বাজার থেকে বাড়ি এসে ঘটনা শুনে শিপনকে উত্তমমধ্যম দেয়। উপায়ান্ত না পেয়ে  শিপন চোর চোর বলে চিৎকার দিলে তার স্বজনরা এসে ওই গৃহবধূর স্বামীকে মারপিট করে হাত ভেঙে দেয়।

আলাওলপুর ইউনিয়নের সংরক্ষিত আসনের মেম্বার রানী বেগম বলেন, শিপন নামে এক লম্পট পাশবিক নির্যাতন করেছে। পুলিশ এ ব্যাপারে নিরব ভূমিকা পালন করছে। আমি এর বিচার চাই।

গোসাইরহাট থানার ওসি এবিএম মেহেদী মাসুদ বলেন, গৃহবধূ আমার কাছে মৌখিকভাবে ধর্ষণের চেষ্টার কথা বলেছে। লিখিত অভিযোগ করেনি। লিখিত অভিযোগ পেলে মামলা নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নিব।

(ঢাকাটাইমস/২০আগস্ট/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত