অসম্ভবকে সম্ভব করল আবহাওয়া অধিদপ্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২১ আগস্ট ২০১৭, ১৩:২৭ | প্রকাশিত : ২১ আগস্ট ২০১৭, ১৩:২২

৬০ মিনিটে এক ঘণ্টা একথা সবারই জানা। সূর্যোদয়, সূর্যাস্তের হিসেবও ঘণ্টা, মিনিট দেখে জানা যায়। কিন্তু ঘণ্টা যখন ৮০ মিনিটে হবে তখন নিশ্চয়ই আঁকতে উঠবেন! কারণ ঘড়িতে তো এই সংখ্যার মিনিটের অস্তিত্বই নেই। তবে হ্যাঁ, এমন অসম্ভবকে সম্ভব করলো বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর।

প্রতিদিনের মতো আবহাওয়া অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে দিনের তাপমাত্রা, সুর্যোদয়, সূর্যাস্তের সময় প্রকাশ করা হয়। বিভাগওয়ারী এসব তথ্য পাওয়া যায় ওয়েবসাইটটি ঘাঁটলে।

তবে সোমবার বরিশাল বিভাগের সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের সময় দেখে চোখ আটকে গেলো বেসরকারি টেলিভিশনের সাংবাদিক মুজাহিদ শুভর। সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠে আবহাওয়া অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে চোখ আটকে যায় তার। দেখতে পান বরিশালে আজ সূর্য‌ উঠেছে ৫টা ৮০ মিনিটে। খুলনায় উঠেছে ৫টা ৭৪মিনিটে!

তথ্যটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে জানান এই সংবাদকর্মী। পোস্টে লেখেন, ‘দেশে সূর্যোদয় এখন ৫টা ৮০ মিনিটেও হচ্ছে। কোন জেলায় সকাল ৫.৭০ মিনিট, কোনটায় আবার ৫.৬৩ মিনিটে। বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্রের কল্যাণে কাজ কমে যাওয়ায় ঈদের চাঁদও ওঠাচ্ছে এখন আবহাওয়া অধিদপ্তর!! ’

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পোস্টের নীচে অনেকে নানান মন্তব্য করতে থাকেন। কেউ আবার পোস্টটি শেয়ার করেন।

বেলা ১২টার দিকেও ওয়েবসাইটে ঢুকে এমন চিত্র দেখা যায়। পরে ঢাকাটাইমসের পক্ষ থেকে বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে আবহাওয়া অধিদপ্তরে যোগাযোগ করা হয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের এই তথ্যের বিষয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরে যোগাযোগ করা হলে এক কর্মকর্তা ফোন করতে বলেন অন্যজনকে। কীভাবে এই ঘটনাটি ঘটল, সেই ব্যাখ্যা পেতে পেতে লেগে গেল মিনিট ১৫ এরও বেশি।

ওয়েবসাইট থেকে আবহাওয়াবিদ মো. মোমেনুল ইসলামের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে ফোনটি ধরেন আরেক আবহাওয়াবিদ মুজাহিদুল ইসলাম।

এমন তথ্য দেয়ার পেয়ে তিনিও যেন আঁৎকে উঠলেন। বলেন, কি বলেন! প্রথমে অবশ্য ভালো বুঝতে না পেরে বলেন, ‘৮০ মিনিট? একটু বেশি হয়ে গেছে তাই না?’।

পরে বিষয়টি আবার বলার পর তিনি বোধহয় নড়েচড়ে বসলেন! বলেন, ‘অনেক ধন্যবাদ ভাই। বিষয়টি জানানোর জন্য। আমি দেখতেছি। হয়তো অ্যাবসেন্ট মাইন্ডে কাজ করায় এমন মিসটেক হয়েছে। এমনটা হওয়ার কথা না।’

এরপর অন্য একটি টিঅ্যান্ডটি নম্বর দিয়ে বিস্তারিত কথা বলার পরামর্শ দেন এই কর্মকর্তা। পরে ওই নম্বরে ফোন করলে দুঃখ প্রকাশ করে দায়িত্বরত আবহাওয়াবিদ আব্দুল মান্নান দ্রুত তথ্যটি সংশোধন করার আশ্বাস দিয়ে সঙ্গে প্রতিবেদকের মোবাইল নম্বরটিও চেয়ে নেন। বলেন,‘পাঁচ মিনিট ওয়েট করুন। আমি জানাচ্ছি।’

কিছু্ক্ষণের মধ্যে ফোন করে মান্নান জানান, ‘টাইপিং মিসটেকের কারণে এমনটা হয়েছে। আপনাকে ধন্যবাদ বিষয়টি আমাদের জানানোর জন্য। এখন দেখতে পারেন তথ্যটি সংশোধন করা হয়ে গেছে।’

পরে ১২টা ৩৫ মিনিটে ওয়েবসাইটে ঢুকে দেখা গেছে, বরিশালে সূর্যোদয় হয়েছে ৫টা ৩৭মিনিটে। এবং খুলনায় সূর্যোদয় হয়েছে ৫টা ৪০ মিনিটে।

(ঢাকাটাইমস/২১আগস্ট/বিইউ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত