হাত-পা বেঁধে সন্তানকে পানিতে ফেলে মায়ের আত্মহত্যা

মেহেরপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ২১:৫৫

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কষবা গ্রামে নিজের শিশু সন্তানকে হাত-পা বেঁধে পানিতে ফেলে এক নারী আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। তার নাম আদুরী খাতুন নামে (২৫)।

বুধবার বিকেলে উপজেলার কষবা গ্রামের বাজার পাড়া থেকে মা ও তার আড়াই বছরের সন্তান সামিয়ার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা বড় গাংনী গ্রামের লোকমান হোসেনের সাথে আদুরী খাতুনের বিয়ে হয় কয়েক বছর আগে। গত সপ্তাহ পারিবারিক কলেহের জেরে নানির বাড়ি কষবা গ্রামে ফিরে আসেন আদুরী।
বুধবার স্বামীর সাথে ফোনে ঝগড়াঝাটির এক পর্যায়ে আড়াই বছর বয়সী সামিয়াকে হাত-পা বেঁধে বাড়ির পার্শ্ববর্তী ডোবায় ফেলে দেন। এরপর ঘরের বাঁশের আড়ার সাথে গলা রশি দিয়ে নিজেও আত্মহত্যা করেন আদুরী। স্থানীয়রা বিকেলে প্রথমে মায়ের লাশ ও পরে শিশু সামিয়ার লাশ উদ্ধার করে।

গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, আত্মহত্যার খবর শুনেছি। পুলিশ পাঠিয়েছি। তদন্ত শেষ না পর্যন্ত হত্যা না আত্মহত্যা এটা নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না। তিনি আরো বলেন, লাশ ময়না তদন্তের জন্য মেহেরপুর মর্গে পাঠানো হচ্ছে।

(ঢাকাটাইমস/২০সেপ্টেম্বর/প্রতিনিধি/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত