বিএনপির জাতীয় ঐক্যের ডাক মুখে না মনে জানতে চান কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১২:৪৮ | প্রকাশিত : ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১২:৪৬

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিএনপির জাতীয় ঐক্যের ডাক মুখে না মনে তা জানতে চান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার মানিক মিয়া অ্যানিভিনিউতে ‘বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী এ কথা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, একদিকে সোকলড জাতীয় ঐক্যের কথা বলে। সরকারে সমালোচনা করেই কি জাতীয় ঐক্য? জাতীয় ঐক্যটা কি তাদের মুখে নাকি মনে আছে সেটা আগে জানতে চাই।

তিনি বলেন, বিএনপি মনের দিক থেকেও দরিদ্র। তাদের মনমানসিকতা এতই দরিদ্র যে সরকারের রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধান এবং তাদের দেশে ফিরিয়ে নেয়ার জন্য যে উদ্যোগ নিয়েছে তার সমালোচনা করছে। এই সময়ে বিএনপির নেতিবাচক পথ থেকে সরে এসে কার্যকর পজেটিভ কিছু করা উচিত।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার জন্য সারা দুনিয়া শেখ হাসিনাকে প্রশংসিত করছে। সেখানে বিএনপি ঢাকায় বসে টেলিভিশনের ক্যামেরার সামনে লিপ সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছে। বাস্তবে কোনো কাজকর্মে নেই।

সরকার রোহিঙ্গা ইস্যুতে কূটনৈতিকভাবে ব্যর্থ হয়েছে বিএনপির এমন অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ওখানেই (কক্সবাজার) থাকি। তারাতো (বিএনপি) ঢাকায় বসে কথা বলে। আমি কক্সবাজার থেকে পাঁচদিন পর এসেছি। তাদের কি এ ধৈর্য আছে? এ মানসিকতা আছে এবং চেতনা আছে? তারা যেটা বলছে সেটা হলো দায়সারা এবং লোক দেখানো প্রতারণা। বিএনপির মুখের কথা ও মনের কথা এক নয়। এটা প্রমাণ হয়ে গেছে।

ঢাকায় বসে বসে মায়াকান্না করা যায় কিন্তু বাস্তবের জমিনটা অন্তত কঠিন বলেন কাদের।

বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা উখিয়া ও টেকনাফে গিয়ে বাস্তব পরিস্থিতি দেখুন। সেখানে কীভাবে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া হচ্ছে। আজ থেকে সেখানে সেনাবাহিনী ত্রাণ তৎপরতা শুরু করেছে। কাজেই বিএনপির অভিযোগ হলো লিপ সার্ভিস।

তিনি জানান, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার কাজ শুরু হয়েছে। পাহাড়ের পাশে সমতলে তাদের তাবু খাটিয়ে অসংখ্য ঘরবাড়ি তৈরি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বিএনপি প্রথম প্রথম বলেছিলো তাদের ত্রাণ দিতে দিচ্ছে না। আমি সেইদিন যাওয়ার সময় একই প্লেনে আব্দুল্লাহ আল নোমান সাহেব এবং আলাল সাহেবসহ তাদের নেতারা ছিলেন। আমি তাদের বলেছি, এখানে আমি আছি। আপনাদের কে বাধা দেয়, সেটা আমাদের জানাবেন। আমার ফোন নম্বর, আমার সঙ্গে নানক (জাহাঙ্গীর কবির নানক) ছিল। তার ফোন নম্বর নিয়ে গেছে। পরের দিন কয়েকবার তাদের আমরা জিজ্ঞাসা করেছি। কোনো অসুবিধা রয়েছে কি না? নোমান সাহেব সেখানে একটা মেডিকেল টিম নিয়ে ক্যাম্প করেছেন, তা আমি নিজেই দেখেছি। কেউ তাদের বাধা দেয়নি।

ঢাকাটাইমস/২২সেপ্টেম্বর/টিএ/জেডএ

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত