শিক্ষকের বেত্রাঘাতে আহত ছয় ছাত্রী হাসপাতাল থেকে বাড়িতে

নিজস্ব প্রতিবেদক, নরসিংদী
 | প্রকাশিত : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ২২:৫৩

স্কুল অ্যাসেম্বলিতে যোগদান করতে দেরি করায় দশম শ্রেণির ছাত্রী পিংকী, হাসিনা, বীনা, লিমা, লাকি ও নবম শ্রেণির তানজিনা নামে ছয় ছাত্রীকে বেত্রাঘাতে আহত করেছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহমুদুল হাসান বাছেদ। পরে তাদের নিজ কক্ষে আটকে রাখা হয়।

শিবপুর উপজেলার দক্ষিণ সাধারচর উচ্চবিদ্যালয়ে শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। একইদিন বিকালে গুরুতর আহত ছয় ছাত্রীকে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দু’দিন চিকিৎসার পর রবিবার বিকালে তাদের নিজ নিজ বাড়িতে নেয়া হয়।

এ নিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসীর মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসকের নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এতে উল্লেখ করা হয়, প্রধান শিক্ষক মাহমুদুল হাসান বাছেদ একজন বদরাগী শিক্ষক। ছাত্র-ছাত্রীদের মারধর করা আইনত নিষিদ্ধ হওয়া সত্বেও তিনি সরকারি নিষেধাজ্ঞার তোয়াক্কা না করে প্রায়ই ছাত্র ছাত্রীদের মারপিট করে থাকেন।

স্কুল পরিচালনা কমিটি সভাপতি ও শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হারুন অর রশিদ খান এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান এবং ঘটনাটি অপ্রত্যাশিত দাবি করেন।

এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষকের মোবাইল ফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়।

(ঢাকাটাইমস/২৪সেপ্টেম্বর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত