‘শনিবার শেষ কথা হয় মনোয়ারের সঙ্গে’

বরিশাল ব্যুরো, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ০৮:৪২

মালিতে সন্ত্রাসীদের পুতে রাখা ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) বিস্ফোরণে নিহত সেনা সদস্য মনোয়ার হোসেনের বরিশালের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। নিহতের দুই সন্তান ও স্ত্রী দায়িত্ব এবং মনোয়ারের লাশ দ্রুত দেশে ফেরত আনার জন্য সরকারের প্রতি দাবি করেছেন স্বজনরা।

মনোয়ারের গ্রামের বাড়ি বরিশাল সদর উপজেলার চন্দ্রমোহন গ্রামে। তবে বরিশাল নগরীর ২৮ নং ওয়ার্ডে শের-ই-বাংলা সড়কের নতুন বাড়িতে বসবাস করত তার পরিবার। গত রমজান মাসের প্রথম দিকে শান্তিরক্ষি বাহিনীতে যোগ দেন তিনি। তিন ভাই-বোনের মধ্যে মনোয়ার সবার বড়।

নিকটআত্মীয়রা জানান, সদর উপজেলার চন্দ্রমোহন এলাকার মৃত রফিকুল ইসলামের দুই ছেলে এবং এক মেয়ের মধ্যে সবার বড় মনোয়ার হোসেন। ২০০৩ সালে সেনা বাহিনীর সৈনিক পদে চাকরি নেয় সে। ২০০৮ সালে একই এলাকার কবির হাওলাদারের মেয়ে ইভা আক্তারকে বিয়ে করে মনোয়ার। তাদের দুই মেয়ে নুসরাত জাহান ইলমুন এবং তাসমিন। ছোট ভাই রবিউল ইসলাম সদ্য পুলিশ কনস্টেবলে চাকরি পেয়ে প্রশিক্ষণরত। একমাত্র বোন জোহরা বেগম গৃহিনী।

চাকরি নেয়ার পর ১০ বছর আগে নগরীর ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের চহুতপুর এলাকায় এক খণ্ড জমি কিনে টিনের ঘর তৈরি করে সেখানে পরিবার-পরিজন রেখে যশোর ক্যান্টনমেন্টে সৈনিকের চাকরি করছিলেন মনোয়ার। বাবা না থাকায় বৃদ্ধা মাকেও নিজের বাসায় এনে রাখেন তিনি। এরই মধ্যে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনে যাওয়ার সুযোগ জোটে তার কপালে। গত ৩০ মে (২ রমজান) জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী মিশনে যান মনোয়ার।

রোববার বিকালে বরিশালে বসবাসরত মনোয়ারের পরিবারের সদস্যরা মৃত্যুর খবরটি প্রথম জানতে পারেন। এরপর থেকে নগরীর ২৮ নং ওয়ার্ডের শের-ই-বাংলা সড়কের মনোয়ারের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

নিহত মনোয়ারের মা রওশন আরা বলেন, শনিবার বিকালে শেষ কথা হয় মনোয়ারের সঙ্গে। তখনও মালিতে ভালো আছেন বলে জানায় এবং সবার কাছে দোয়া চায়।

মনোয়ারের স্ত্রী ইভা আক্তার জানান,  সাত বছর ও দেড় বছরের দুটি মেয়ে সন্তান রয়েছে তাদের সংসারে। ১০ বছর আগে বিয়ে করেন তারা।

সেনা সদস্য মনোয়ার হোসেনের শ্বশুর কবির হাওলাদার বলেন, মনোয়ারের দুই সন্তান ও স্ত্রীর দায়িত্ব এবং মনোয়ারের লাশ দ্রুত দেশে ফেরত আনা হয় সেজন্য সরকারের কাছে অনুরোধ করছি।

(ঢাকাটাইমস/২৫সেপ্টেম্বর/জেডএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত