আশ্রয়ক্যাম্পে সড়ক নির্মাণে ৩৫ কোটি টাকা দেবে ইউএনএইচসিআর

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৫:৩৯ | প্রকাশিত : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৪:৫৪

রোহিঙ্গাদের সাময়িক আশ্রয়কেন্দ্র এলাকায় অবকাঠামোগত উন্নয়নে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর ৩৫ কোটি টাকা দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। তিনি বলেন, এই টাকা দিয়ে দ্রুত রাস্তাঘাট নির্মাণ করা হবে। রোহিঙ্গাদের জন্য সাময়িক বরাদ্দ কুতুবপালং ও বালুখালীর দুই হাজার একর জমিতে এসব রাস্তাঘাট হবে।

সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ইউএনএইচসিআর এর শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনার ফিলিপ্পো গ্রান্ডির নেতৃত্বে ছয় সদস্যের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে এসব তথ্য জানান মন্ত্রী।

ত্রাণমন্ত্রী বলেন, ‘অবকাঠামোগত উন্নয়নে ইউএনএইচসিআর যে ৩৫ কোটি টাকা দিচ্ছে তা দ্রুত পেয়ে যাব। এই টাকা দিয়ে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে রোহিঙ্গাদের জন্য রাস্তাঘাটসহ অবকাঠামোগত উন্নয়ন দ্রুত শেষ করা হবে। কারণ সেনাবাহিনী অভিজ্ঞ, তাদের দ্বারাই নিখুঁত কাজ করা সম্ভব।’

মায়া বলেন, শুধু অবকাঠামোগত উন্নয়ন নয়, পয়ঃনিষ্কাশন ও স্বাস্থ্যসহ মানবিক অন্যান্য বিষয়ে সক্রিয় সহযোগিতা করার এবং পাশে থাকারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ইউএনএইচসিআর। সে বিষয়টি জানাতে তারা এসেছিল।

মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা সাড়ে চার লাখ ছাড়িয়েছে। এটি বাংলাদেশের জন্য মরার উপর খারার ঘা বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে মায়া বলেন, ‘মিয়ানমার থেকে যেসব রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে তারা অনুপ্রবেশকারী। বাংলাদেশ সরকার মানবিক কারণে সাময়িকভাবে তাদের আশ্রয় দিয়েছে। আর বাংলাদেশে আসার পর যেসব শিশু ভূমিষ্ট হয়েছে তারা মিয়ানমারের নাগরিক। তাদের মিয়ানমারের নাগরিক হিসেবেই বাংলাদেশ সরকার জন্ম সনদ দিচ্ছে। মা ও শিশু উভয়ই মিয়ানমারের নাগরিক। তাদেরকে নিজ দেশে ফিরে যেতে হবে।

ঢাকাটাইমস/২৫সেপ্টেম্বর/এমএম/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত