ফরিদপুরে দেবী দুর্গা বরণে সকল প্রস্তুতি শেষ

ফরিদপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৯:২৩

এ বছর ফরিদপুর জেলায় ৭৩৭টি মণ্ডপে দুর্গা পূজার আয়োজন করা হয়েছে। পূজা আয়োজনের সার্বিক প্রস্তুতি শেষ পর্যায়ে। পূজার নিরাপত্তায় সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে পুলিশ প্রশাসন।

ফরিদপুর জেলার নয়টি উপজেলায় এবছর ৭৩৭টি মণ্ডপে দুর্গা পূজার আয়োজন করা হয়েছে। মণ্ডপে মণ্ডপে পুলিশের পাশাপাশি আনসার সদস্যদেরও নিরাপত্তার দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে।

ফরিদপুরের ডি.আই.ও.ওয়ান (জেলা ইন্টেলিজেন্স কর্মকর্তা) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ফরিদপুর শহরের ১০টি পূজা মণ্ডপে বিশেষ নিরাপত্তা নেওয়া হচ্ছে। প্রকার ভেদে এসব মণ্ডপে পাঁচ থেকে নয়জন পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন।

দুর্গাপূজার আয়োজনকে সার্বিকভাবে সফল করার লক্ষে জেলা প্রশাসন এবং পুলিশের পক্ষ থেকে হিন্দু সম্প্রদায়সহ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে একাধিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

ফরিদপুরে এবারের পূজার বিশেষ আকর্ষণ হচ্ছে বোয়ালমারী উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের ধোপাডাঙ্গা গ্রামের জীবন দেবনাথের বাড়ির পূজা। এ মণ্ডপে দুর্গা প্রতিমার পাশাপাশি রামায়নের কাহিনী অবলম্বনে উল্লেখযোগ্য ৫২টি ঘটনা নিয়ে বিশেষ আয়োজন করা হয়েছে। ৫২টি ঘটনার মধ্যে রামের জন্ম, বিয়ে, তারকা রাক্ষসী বধ, বনবাস, লক্ষ্মণের শক্তিশেল, রাবনবধসহ ৫২টি বিষয় তুলে ধরা হয়েছে। এই মণ্ডপে দেবী দুর্গা ও সন্তানদের পাশাপাশি থাকছে রামায়নের দুইশো চরিত্রের মূর্তি। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে এলাকার সবার আগ্রহের কেন্দ্রে এই পূজার আয়োজন।

শরৎকালে অকাল বোধনে দেবী দুর্গাকে আবাহন করেছিলেন রামচন্দ্র। তাই রামায়নের সাথে শারদীয় দুর্গাপূজার অবিচ্ছেদ্য সম্পর্ক। এই সূত্র ধরেই রামায়নের কাহিনী ভক্তের সামনে তুলে ধরার চেষ্টায় বলে জানিয়েছেন  যশোদা জীবন দেবনাথ।

এ প্রতিমাগুলি নির্মাণ করেছেন ফরিদপুর সদরের মাচ্চর ইউনিয়নের খলিলপুর গ্রামের সুজয় পাল। তাকে সাহায্য করেছেন আরও চারজন। এ নির্মাণ কাজ গত চার মাস আগে থেকে শুরু হয়েছে।

ফরিদপুর জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুকেশ সাহা বলেন, দুর্গা পূজাকে সামনে রেখে সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। পূজা উদযাপন কমিটি প্রশাসনের সাথে বৈঠক করে প্রতীমা বিসর্জনের সময় রাত ১০ টা থেকে ১১টার মধ্যে নির্ধারণ করেছে। এছাড়া বিসর্জনের দিন প্রতি বছরের মতো বিসর্জন ঘাটে মেলার আয়োজন করা হবে।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জামাল পাশা জানান, উৎসবমুখর পরিবেশে শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপনে তিন স্তরের নিরাপত্তা দেওয়া হবে। ইতিমধ্যে সে জেলার সকল পূর্জা হবে এমন মণ্ডপে আমাদের সকল প্রস্তুতি শেষ হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২৫সেপ্টেম্বর/প্রতিনিধি/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত