তালেবানদের জিম্মায় পাঁচ বছর আটক কানাডিয়ান দম্পতি

তাজরিন জাহান তারিন,ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৩ অক্টোবর ২০১৭, ১০:১৩

প্রায় পাঁচ বছর আগে আফগানিস্থানে হাইকিংএ গিয়ে নিখোঁজ হয়েছিলেন কানাডার যশুয়া বয়েল এবং তার আমেরিকান স্ত্রী কেইটল্যান কোলম্যান। এর পর থেকেই তাদের কোন খোঁজ ছিলনা।গত বছরের ডিসেম্বরে একটি ভিডিও প্রকাশ পায় তাদের। সেখান থেকে জানা যায় তারা এবং তাদের তিন সন্তান তালেবান সমর্থিত এক জঙ্গি গোষ্ঠীর হাতে বন্দী আছে। অপহরণের সময় কোলম্যান পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। এই পাঁচ বছরে বন্দী থাকা অবস্থায় তাদের বাকি দুই সন্তান জন্মায়।

গতকাল পাকিস্তান সরকার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা কাজ করার পরে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী এবং গোয়েন্দা সংস্থার যৌথ অভিযানে যশুয়া বয়লে এবং কেইটল্যান কোলম্যান হাক্কানি গ্রুপ থেকে উদ্ধার হয়েছে’। আইএসপিআর জানায়, ‘যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা আগে থেকেই তাদের ওপর নজর রাখেছিল।১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে কুররাম সীমান্ত কর্মকর্তাদের জানায় তারা পাকিস্তানে তাদের অবস্থান পরিবর্তন করেছেন’। ‘২০১২ সালে আফগানিস্থানে তারা অপহৃত হন এবং সেখানেই তাদের বন্দী অবস্থায় রাখে’।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বলা হয়েছে, ‘আফগানিস্থানের  রাজধানী কাবুলের দক্ষিন-পশ্চিমাঞ্চলীয় গজনি প্রদেশে এই দম্পতি অপহৃত হয়। এই সংঘর্ষপূর্ণ দেশটিতে পাঁচ বছর আগে তারা হাইকিংএর সময় অপহৃত হন। এসময় কোলম্যান পাচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন’।

ওয়াইট হাউস থেকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক বিবৃতিতে বলেন, ‘আজ তারা মুক্ত’।‘এটা পাকিস্তানের সাথে আমদের দেশের সম্পর্কের জন্য একটি ইতিবাচক মুহূর্ত এবং আমরা আশা করি এধনের সহযোগিতা মূলক এবং দলগত কাজ ভবিষ্যতে বাকী বন্দীদের মুক্ত করতেও সহযোগিতা করবে’।

মুক্তির পর থেকে বয়েল বা কোলম্যান কেউই জনসম্মুখে কিছু বলেনি এবং তাদের বর্তমান অবস্থানও অজানা। বয়েলের বাবা প্যাট্রিক জানিয়েছে, ‘সে ভালই আছে। একটি ভূগর্ভস্ত কারাগারে পাঁচ বছর অতিবাহিত যেমন থাকা যায় ।

গত সপ্তাহেই তাদের অপহরনের বার্ষিকীকে সামনে রেখে বয়েলের  বাবা মা এই দম্পতিদের এবং তাদের সন্তানদের একটি ভিডিও প্রকাশ করে। যা তারা এই বছরের শুরুতে পেয়েছিল। ভিডিওতে বয়েল বলছিলেন, ‘আল্লাহর ইচ্ছায় এসব খুব দ্রুতই শেষ হবে তখন কারো কাছেই আর এখনকার মত ঝামেলার হয়ে থাকবনা’।

গত বছরের ডিসেম্বরে তারা বেঁচে আছে এ ধরেন একটি ভিডিও প্রকাশ পায়।এতে তারা তৎকালীন প্রেসিডেন্ট  বারাক ওবামা এবং আসন্ন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে আফগানি সৈন্যর বিনিময়ে তাদের মুক্তির অনুরোধ জানায়। এর পর থেকে এই দম্পতিদের বেশ কিছু ভিডিও প্রকাশ পায় যাতে তারা উল্লেখ করেছে তালেবানদের  দাবী যদি পূরণ করা না হয় তবে তাদেরকে হত্যা করা হবে।

বয়েল এবং কোলম্যানের পরিচয় হয়েছিল অনলাইনে এবং ২০১১ সালে তারা বিয়ে করে। বয়েল  এর আগে কানাডিয়ান  ওমর খাদ্রের বোন যায়নাব খাদর বিয়ে করেন। ওমর খাদর  মাত্র ১৫ বছর বয়সে আফগানিস্থানে এক অগ্নিকান্ডে মার্কিন সৈন্যদের হাতে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক হয় এবং তাকে গুয়ান্তনামো বে তে পাঠানো হয়। যদিও পরে তিনি মুক্তি পেয়েছিলেন কারন যখন তিনি মার্কিন সৈন্যদের হাতে আটক হন তখন তার বয়স ছিলো ১৫ বছর। অপ্রাপ্তবয়স্ক অবস্থায় তাকে সাজা দেয়া হয় বলে ওমর সম্প্রতি কয়েক মিলিয়ন ডলারের ক্ষতিপূরণও আদায় করেন আমেরিকার সরকারের কাছ থেকে।

গত বছরের জানুয়ারিতে অন্য একজন কানাডার নগরিক কলিন রুথফোর্ড পাঁচ বছর তালেবানদের জিম্মি থাকার পরে মুক্তি পেয়েছিলেন কাতার সরকারের সহযোগিতায় ।

ঢাকাটাইমস/১৩ অক্টোবর/টিজেটি/কেএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত