ইসির সংলাপে যাচ্ছেন আ.লীগের ২২ নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০১৭, ১৭:৪৪ | প্রকাশিত : ১৭ অক্টোবর ২০১৭, ১৭:০৭

ধারাবাহিক সংলাপের অংশ হিসেবে আগামীকাল বুধবার সরকারি দল আওয়ামী লীগের সঙ্গে বসবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বেলা ১১টা থেকে শুরু হওয়া ওই সংলাপে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এছাড়া প্রতিনিধি দলে কেন্দ্রীয় আরও ২১ নেতা থাকবেন।

আওয়ামী লীগের একটি সূত্র ঢাকাটাইমসকে প্রতিনিধি দলে ২২ জনের থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ওবায়দুল কাদের ছাড়া অন্য সদস্যরা হলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, এইচ টি ইমাম, রাশিদুল আলম, অ্যাম্বসেডর জমির, ড. মসিউর রহমান, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, মোহাম্মদ নাসিম, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, আবদুর রাজ্জাক, লে. কর্নেল (অব.) ফারুক খান, রমেশ চন্দ্র সেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ এইচ এন আশিকুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, কার্যনির্বাহী সদস্য রিয়াজুল কবির কাওছার।

তবে প্রতিনিধি দলের তালিকায় থাকা সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বিদেশে আছেন বলে জানা গেছে। সংলাপে তার অংশগ্রহণের বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নয় বলে একটি সূত্র জানিয়েছে।

গত রবিবার সচিবালয়ে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেছেন, ইসির সঙ্গে সংলাপে অংশ নিয়ে তারা ১১ দফা সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা দেবেন। তবে এসব প্রস্তাবে কী থাকবে তা এখনই বলবেন না।

তবে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, দলটির প্রস্তাবনায় আরপিও এর বাংলা সংস্করণে ইসির উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে এর প্রতি সমর্থন থাকবে। নির্বাচন পরিচালনায় বেসরকারি সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানের কোনো কর্মচারীদের নিয়োগ না দিয়ে প্রজাতন্ত্রের দায়িত্বশীল কর্মচারীদের থেকে যোগ্যতার ভিত্তিতে প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং অফিসার নিয়োগের সুপারিশ করবে আওয়ামী লীগ।

এছাড়া দেশি বিদেশি পর্যবেক্ষক নিয়োগে সর্বোচ্চ স্বচ্ছতা ও সতর্কতা অবলম্বনসহ কোনোভাবেই কোনো বিশেষ দল বা ব্যক্তির প্রতি আনুগত্যশীল হিসেবে পরিচিত বা চিহ্নিত ব্যক্তি, গোষ্ঠী বা সংস্থাকে নির্বচন পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব প্রদান না করা হয় তার প্রস্তাব দেবে তারা।

বিরাজমান সব বিধিবিধানের সঙ্গে জনমানুষের ভোটাধিকার সুনিশ্চিত করতে আধুনিক ও গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রসমূহের মতো আগামী সংসদ নির্বাচনে ইভিএম এর মাধ্যমে ভোটদান প্রবর্তন করার সুপারিশ করবে আওয়ামী লীগ।

ক্ষমতাসীন এ দলটি সংলাপে নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের বিরোধিতা করবে। দলটির মনে করছে প্রতিরক্ষা বাহিনীকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অন্তর্ভুক্তি বা নির্বাচনকালীন সময়ে তাদের নিয়োগের বিষয়ে কোনো কোনো রাজনৈতিক দল উদ্দেশ্য প্রণেদিতভাবে দাবি তুলেছে। দেশের বিরাজমান আইন ও সাংবিধানিক নিয়মকানুনের সাথে সাংঘর্ষিক বলেও আওয়ামী লীগ তার প্রস্তাবনায় তুলে ধরবে। তবে ফৌজদারি কার্যবিধির ১২৯-১৩১ ধারা মোতাবেক আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার ক্ষেত্রে কোনো পরিস্থিতিতে প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যদের নিয়োগ করা যাবে তা উল্লেখ করে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বাহিনীকে সাধারণ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অন্তর্ভুক্ত করা হলে তাদের বিশেষায়িত অবস্থান বিনষ্ট হবে বলে ইসিতে তারা জানিয়ে দেবে।

(ঢাকাটাইমস/১৭অক্টোবর/টিএ/জেবি) 

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত