চোখ উপড়ে ফেলার মামলার আসামি রূপগঞ্জে গ্রেপ্তার

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ অক্টোবর ২০১৭, ২২:১২

মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার আউলিয়ারচর এলাকায় পান ব্যবসায়ী ও আওয়ামী লীগ নেতা কবির মৃধার চোখ উপড়ে ফেলার মামলার আসামি চাঁন মিয়াকে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকালে উপজেলার তারাব পৌরসভার বরাব বেকারির মোড় এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার চাঁন মিয়া মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার খোলেরচর এলাকার সাদের আলী সিকদারের ছেলে।

কালকিনি থানার বরাত দিয়ে রূপগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম জানান, গত ৩ মে লঞ্চে করে পান নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হন কবির মৃধা। ওই সময় অপহরণকারীরা লঞ্চ থেকে নামিয়ে অপহরণ করে নিয়ে যায় তাকে। বহু খোঁজাখুঁজির পর তাকে পায়নি পরিবারের লোকজন। 

বিষয়টি কালনিকি থানা পুলিশকে অবহিত করা হলে আউলিয়ারচর এলাকায় পান ব্যবসায়ী ও আওয়ামী লীগ নেতা কবির মৃধাকে দুটি চোখ উপড়ে ফেলা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। প্রথমে তাকে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় কবির মৃধার পিতা নুর মোহাম্মদ মৃধা বাদী হয়ে বাঁশগাড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুমন বেপারী, চাঁন মিয়াসহ ২৩ জনকে আসামি করে কালকিনি থানায় একটি মামলা করেন। ওই মামলার আসামি চাঁন মিয়া রূপগঞ্জ উপজেলার তারাব পৌরসভার বরাব বেকারির মোড় এলাকায় আত্মগোপন করে আছে বলে পুলিশের কাছে সংবাদ আসে। বিকালে একদল পুলিশ সেখান থেকে চাঁন মিয়াকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার চাঁন মিয়াকে কালকিনি থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে কবির মৃধার ভাই খবির মৃধা মেম্বার জানান, গত বাঁশগাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ওই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান সুমন বেপারীর পক্ষে সমর্থন করেননি তার ভাই কবির মৃধা। ওই ক্ষোভেই কবির মৃধাকে অপহরণ করার পর দুই চোখ উপড়ে ফেলে চেয়ারম্যান সুমন বেপারীসহ তার লোকজন।

(ঢাকাটাইমস/১৭অক্টোবর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত