মায়ের জন্য স্ত্রী ছাড়েন অতুল প্রসাদ

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২০ অক্টোবর ২০১৭, ০৮:১৪

অতুল প্রসাদ। ব্রিটিশ ভারতবর্ষে ঊনবিংশ শতাব্দীতে আবির্ভূত একজন বিশিষ্ট বাঙালি গীতিকার, সুরকার ও গায়ক। একজন বিশিষ্ট সঙ্গীতবিদও ছিলেন তিনি। তার রচিত গানগুলোর মূল উপজীব্য ছিল দেশপ্রেম, ভক্তি ও প্রেম। জীবনের দুঃখ ও যন্ত্রণাগুলো তিনি গানের ভাষায় তুলে ধরেছিলেন।

দুঃখগীতির কারিগর অতুল প্রসাদের আজ জন্মদিন। ১৮৭১ সালের ২০ অক্টোবর তার জন্ম। তাদের আদি নিবাস তৎকালীন ফরিদপুর জেলার মাদারীপুর মহকুমার দক্ষিণ বিক্রমপুরের মগর গ্রামে।

বাল্যকালে পিতৃহীন হয়ে অতুল প্রসাদ সুকন্ঠ গায়ক ও ভক্তিগীতি রচয়িতা মাতামহ কালীনারায়ণ গুপ্তের আশ্রয়ে প্রতিপালিত হন। পরবর্তীকালে মাতামহের এসব গুণ তার মাঝেও সঞ্চালিত হয়। মাতামহের কাছেই সঙ্গীত ও ভক্তিমূলক গানে তার হাতেখড়ি।

অতুল প্রসাদ পড়াশোনা করেন কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজে। পরে তিনি আইন বিষয়ে পড়াশোনার জন্য লন্ডন যান। ১৮৯২ সালে লন্ডনে ব্যারিস্টারি পড়ার সময় তার বড় মামা কৃষ্ণগোবিন্দ গুপ্ত পরিবারসহ বেড়াতে যান সেখানে। মামাতো বোন হেমকুসুমের সঙ্গে তার প্রেম গড়ে ওঠে। হেমকুসুমকে তিনি বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন৤ কিন্তু ভারতবর্ষের আইনে তখন এ রকম ভাই-বোনের বিয়ে নিষিদ্ধ ছিল৤ পরিবারের পক্ষ থেকেও ওঠে প্রবল আপত্তি৤ কিন্তু অতুল প্রসাদ তার সিদ্ধান্তে অটল থাকেন।

কর্মগুরু সত্যেন্দ্রপ্রসন্ন সিংহের পরামর্শে স্কটল্যান্ড চলে যান তিনি, যেখানে এমন বিয়েতে কোনো বাধা ছিল না। স্কটল্যান্ডে গিয়ে ১৯০০ সালে মামাতো বোন হেমকুসুমকে বিয়ে করেন অতুল প্রসাদ৤

ছোটবেলায় অতুল প্রসাদের বাবা মারা গেলে তার মা আবার বিয়ে করেন। দ্বিতীয় স্বামীও মারা গেলে ছেলের সংসারে ফিরে আসেন মা হেমন্ত শশী। শুরু হয় বউ-শাশুড়ির দ্বন্দ্ব। পরিণতিতে স্বামী-স্ত্রীর ছাড়াছাড়ি৤ পরে আবার একও হন তারা। তার পরও হেমন্ত শশী ও স্ত্রী হেমকুসুমের দ্বন্দ্ব মেটেনি কখনোই৤

মা হেমন্ত শশীর মৃত্যুর পর ঘরে তার ছবি টাঙানো ছিল৤ কিন্তু সে ছবি রাখতে রাজি নন অতুলপ্রসাদের স্ত্রী হেমকুসুম৤ ঘর থেকে শাশুড়ির ছবি সরিয়ে ফেলার দাবি তোলেন তিনি। কিন্তু মায়ের ছবিকে এভাবে অসম্মান করতে নারাজ অতুল প্রসাদ৤ এবার হেমকুসুম স্বামীর ঘর ছাড়লেন চিরকালের জন্য।

১৯৩৪ সালের ২৬ আগস্ট মারা যান বাঙালি গীতিকার, সুরকার ও গায়ক অতুল প্রসাদ। গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ব্রহ্ম মন্দিরের পাশে সমাহিত করা হয় তাকে।

(ঢাকাটাইমস/২০অক্টোবর/এএইচ/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত