‘মাদক বিক্রেতাদের থেকে সুবিধা গ্রহণকারীরা পুলিশ নামের কলঙ্ক’

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০১৭, ২৩:০৩ | প্রকাশিত : ২১ অক্টোবর ২০১৭, ২৩:০২

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মঈনুল হক বলেছেন, মাদক দেশের সবচেয়ে বড় সমস্যা। মাদক দেশের সীমান্ত দিয়ে প্রবেশ করছে। সীমান্তে অন্য একটা বাহিনী রয়েছে। কিন্তু কোন ঘাটতির কারণেই মাদক প্রবেশ করছে। অথচ সকল দায় পড়ছে পুলিশের উপর। আমি এর দায় স্বীকার করে নিয়েই বলছি, সকল পুলিশ সদস্য ফেরেশতা নয়। দুই-একজন পুলিশ সদস্যের কারণেই পুলিশের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। নারায়ণগঞ্জে ২২০০ পুলিশ সদস্য রয়েছে সবাই তো ফেরেশতা নন। তবে যেসব পুলিশ সদস্য মাদক বিক্রেতাদের থেকে সুবিধা নেন- তারা পুলিশ নামে কলঙ্ক।

শনিবার সকালে জেলা পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের আয়োজনে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ লাইনসের মাল্টিপারপাস হলে এক প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

কর্মশালায় প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশ্যে পুলিশ সুপার বলেন, অসংখ্য মানুষের প্রাণ আপনাদের হাতে থাকে। আপনাদের গাফিলতি অবহেলার কারণে নিজেরা যেমন দুর্ঘটনার শিকার হতে পারেন, তেমনি আপনার পরিবারও দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে। এজন্য আপনাদের সচেতন হতে হবে। অনেক চালক-হেলপার মাদকসেবন করে যা দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ। অনেকে রাতে না ঘুমিয়ে গাড়ি চালান- এর জন্যও দুর্ঘটনা ঘটে।

এসপি বলেন, অনেক পরিবহনে মাদক বহন করা হয়ে থাকে। এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে জানাতে হবে। কোথাও জঙ্গি কার্যক্রমের সন্দেহজনক কিছু দেখলে আমাদের জানাবেন। আপনাদের কারণে যাতে সড়কে যানজট না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন। মনে রাখতে হবে, আপনারা অন্য কিছু পারেন বা না পারেন কারো ক্ষতি করবেন না। (ঢাকাটাইমস/২১অক্টোবর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত