আখাউড়ায় খাদেমের লাথিতে মাজারভক্তের মৃত্যু

আখাউড়া প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২২ অক্টোবর ২০১৭, ১৭:২৬
ফাইল ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ার খরমপুর গ্রামের রিংকু খাদেমের (৪০) লাথিতে রাবিয়া খাতুন (৬৫) নামে এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তিনি পৌরশহরের খরমপুর কেল্লা বাবা মাজারের ভক্ত ছিলেন।

পুলিশ রিংকু খাদেমকে গ্রেপ্তার করেছে। রিংকু খরমপুর গ্রামের বাসিন্দা মৃত নূরে আলম খাদেমের ছেলে।  তিনি মানসিক ভারসাম্যহীন বলে জানা গেছে।

রবিবার দুপুর ১২টার দিকে মাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে,  আখাউড়া পৌরশহরের খরমপুর গ্রামের রিংকু খাদেম দুপুরের দিকে কেল্লাবাবার মাজারে যান। মাজারের ভক্ত রাবিয়া খাতুনকে ডেকে আনেন তিনি। এসময় নিজেকে খোদা দাবি করেন রিংকু। তা মেনে নিতে রাবিয়াকে নির্দেশ করা হয়। রাবেয়া তার কথা অমান্য করে বলেন, ‘খোদা একজনই, তিনি ওপরে আছেন’ -এ কথা বলায় ওই নারীকে রিংকু খাদেম একাধিক লাখি মারলে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

খরমপুর কেল্লা বাবার মাজার পরিচালনা কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসান খান বলেন, রাবিয়ার আসল পরিচয় জানা নেই। তবে সে কেল্লা বাবার ভক্ত হিসেবে প্রায় ৪০ বছর ধরে মাজার এলাকায় বসবাস করে আসছে। রাবিয়া স্বেচ্ছায় মাজার এলাকার পরিচ্ছন্নকর্মী ছিল বলে জানান তিনি।

আখাউড়া থানার ওসি মোশারফ হোসেন তরফদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খুব সম্ভবত রিংকু মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তি। এ কারণেই এ হত্যার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

(ঢাকাটাইমস/২২অক্টোবর/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত