শৈলকুপায় স্ত্রীর গলায় ফাঁস লাগিয়ে হত্যা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ নভেম্বর ২০১৭, ২৩:৪৫

ঝিনাইদহের শৈলকুপার গোয়ালবাড়িয়া গ্রামে সোহাগী (২৪) নামে এক বধূকে গলায় ফাঁস লাগিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী উজ্জল পালাতক রয়েছেন। আটক করা হয়েছে তার ছোট ভাই আজিজকে।

শুক্রবার দুপুর ১ টার দিকে সোহাগীর বাবার বাড়ি থেকে লাশ উদ্ধার করে শৈলকুপা থানা পুলিশ। এ ঘটনায় সোহাগীর বাবা গোলাম মোস্তফা বাদী শৈলকুপা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ৭ বছর আগে শৈলকুপা থানার নিত্যানন্দপুর ইউনিয়নের বাগুটিয়া গ্রামের কাওসার আলীর ছেলের সাথে উমেদপুর ইউনিয়নের গোয়ালবাড়িয়া গ্রামের গোলাম মোস্তফার মেয়ে সোহাগীর বিয়ে হয়।

তাদের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। কিন্তু স্বামী এবং তার বাড়ির লোকেরা যৌতুকের দাবিতে বিভিন্ন সময়ে নির্যাতন করত সোহাগীর ওপর। মেয়ের নির্যাতন বন্ধ করতে বিভিন্ন সময়ে টাকা দিয়েছেন বলে ইজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। ৬ মাস আগে দিশা নামক এনজিওতে চাকরি নেন সোহাগী। নির্যাতনের ভয়ে বাবার বাড়িতে থাকলেও স্বামী কয়েকবার গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমে নিয়ে এসেছে। ঘটনার আগের দিন উজ্জল শ^শুর বাড়িতে যায় এবং রাতের খাবার খেয়ে স্বামী স্ত্রী একই ঘরে ঘুমায়। রাত তিনটার দিকে বাচ্চা ছেলেটির কান্নায় বাড়ির লোকের ঘুম ভাঙলে দেখেন সোহাগীর লাশ ঘরের আড়ায় ঝুলছে। জামাতা নিখোঁজ!

শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত আলমগীর হোসেন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মেয়ের বাবা বাদী হয়ে অভিযোগ দিয়েছেন। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/১৭নভেম্বর/প্রতিনিধি/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত