কনস্টেবলকে মারধর করে টাকা-ট্যাব ছিনিয়ে নিলেন জনপ্রতিনিধি

বগুড়া প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ নভেম্বর ২০১৭, ০০:১৫

বগুড়ায় পুলিশ কনস্টেবলকে মারপিট করে নগদ ৫০ হাজার টাকা এবং একটি ট্যাব ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে স্বেচ্ছা সেবকলীগ নেতা ও পৌর কাউন্সিলর ইব্রাহিম হোসেন ওরফে ইব্রাহিম পাগলার বিরুদ্ধে।

এই ঘটনায় শুক্রবার রাতে ভুক্তভোগী পুলিশ সদস্য শিলু মিয়া বাদী হয়ে বগুড়া পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইব্রাহিম হোসেন ওরফে ইব্রাহিম পাগলাসহ দুইজনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেছেন। মামলায় আরও অজ্ঞাত ৬ জনকে আসামি করা হয়েছে।

পুলিশ ওই মামলায় তিনজনকে আটক করেছে। এরা হলেন- শহরের সেউজগাড়ী রেলকলোনীর জনি (৩৫) মনিরুল ইসলাম (৩৬) পাল পাড়ার বাধন (৯১)।

মামলা সূত্রে জানা যায়, পুলিশ হেডকোয়াটারে কর্মরত পুলিশ কনেস্টবল শিলু মিয়ার গ্রামের বাড়ি বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলার চরচন্দন বাইশা গ্রামে। গত ২৮ অক্টোবর ১৪ দিনের ছুটি নিয়ে বগুড়ায় আসেন। ছুটি শেষে গত ১১ নভেম্বর ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে ৫০ হাজার টাকা উত্তোলন করেন। ওই রাতে ট্রেনযোগে ঢাকায় যাওয়ার জন্য বগুড়া রেল স্টেশনে যান। এসময় সালেক নামের তার একবন্ধু তাকে ফোন করে জানান পিতার মুক্তিযুদ্ধের গেজেট মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়া লাগবে। সে শিলুকে বলে, ‘যেহেতু তোমার ট্্েরন আসতে দেরী হচ্ছে, তাই তুমি (শিলু) সেউজ গাড়ি পালপাড়ার শান্তর মেসে আসো। বন্ধুর কথা মতো শিলু ওই মেসে গেলে আসামি ইব্রামি ও তার সহযোগিরা তার কাছে থাকা ৫০ হাজার টাকা এবং তার বন্ধুর একটি ট্যাব ছিনিয়ে নেন। এসময় তার প্রতিবাদ করলে তাকে এবং তার ছোচ ভাই আবদুর রউফকে কাউন্সিলরের অফিসে নিয়ে আটকে রাখা হয়। পরে শিলু বিষটি পুলিশকে জানলে পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। এসময় কাউন্সিলরসহ তার সহযোগিরা পালিয়ে যান।

(ঢাকাটাইমস/১৮নভেম্বর/প্রতিনিধি/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত