প্রাথমিক সমাপনীতে বসেছে ৩১ লাখ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০১৭, ১১:০৭ | প্রকাশিত : ১৯ নভেম্বর ২০১৭, ১১:০০
ফাইল ছবি

সারাদেশে শুরু হয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা। রবিবার সকাল ১১টায় পরীক্ষা শুরু হয়। শেষ হবে দুপুর দেড়টায়।উভয় স্তরে আজ ইংরেজি পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে।

দেশের সাত হাজার ২৬৭টি এবং বিদেশের ১২টি কেন্দ্রে ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা চলবে। এতে ৩০ লাখ ৯৬ হাজার ৭৫ শিক্ষার্থী অংশ নেবে। মোট ছয়টি বিষয়ে প্রতিটিতে ১০০ করে মোট ৬০০ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এবার প্রাথমিকে পরীক্ষার্থী ২৮ লাখ ৪ হাজার ৫০৯ ও ইবতেদায়িতে ২ লাখ ৯১ হাজার ৫৬৬ জন। উভয় পরীক্ষায় গত বছরের তুলনায় এবার ১ লাখ ৩৬ হাজার পরীক্ষার্থী কমেছে।

প্রাথমিকে মোট পরীক্ষার্থীর ১২ লাখ ৯৯ হাজার ৯৮৫ জন ছাত্র এবং ১৫ লাখ ৪ হাজার ৫২৪ জন ছাত্রী। গত বছরের তুলনায় ১ লাখ ২৬ হাজার ৬৪ জন শিক্ষার্থী কমে গেছে।

অপরদিকে ইবতেদায়িতে ছাত্র ১ লাখ ৫৩ হাজার ১৫২ ও ছাত্রী ১ লাখ ৩৮ হাজার ৪১৪ জন। ইবতেদায়িতে কমেছে ৮ হাজার ১৪৯ জন।

এবার দুই হাজার প্রাথমিকে ৯৫৩ জন ও ইবতেদায়িতে ৩৭৯ জন ‘বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন’পরীক্ষার্থী অংশ নেবে। এই শিক্ষার্থীদের অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় দেওয়া হবে।

প্রশ্নপত্র ফাঁসরোধে এবার থেকে পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পরীক্ষা শুরুর পাঁচ মিনিট আগে প্রশ্নপত্র সরবরাহ করবেন এবং এ সময় কোনো পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ব্যবহার করা যাবে না বলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়।

এ ব্যাপারে গত বুধবার সচিবালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বলেছেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে গত বছর থেকে দেশের ৬৪ জেলাকে বিশেষ আটটি অঞ্চলে ভাগ করে আট সেট প্রশ্ন ছাপিয়ে প্রাথমিক ও ইবেতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা নিচ্ছে সরকার। পরীক্ষার দায়িত্ব পালনে অবহেলা বা অনিয়মের ক্ষেত্রে ‘জিরো টলারেন্স’নীতি গ্রহণ করা হবে।

এরই মধ্যে প্রশ্নপত্র ফাঁসরোধে বিশেষ নিরাপত্তায় জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে এবং দুর্গম এলাকার ২০৪টি কেন্দ্রে বিশেষ ব্যবস্থায় প্রশ্নপত্র পাঠানো হয়েছে।

ঢাকাটাইমস/১৯নভেম্বর/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত