কলকাতার সিরিয়ালে বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ নভেম্বর ২০১৭, ১২:০৫

কলকাতার টিভি চ্যানেল স্টার জলসায় প্রচারিত সিরিয়ালগুলোর অগণিত ভক্ত রয়েছে বাংলাদেশে। সেই সিরিয়ালগুলোরই একটি হচ্ছে ‘ভজ গোবিন্দ’। এই ‘ভজ গোবিন্দ’ সিরিয়ালের ১৮ নভেম্বরের এপিসোডে উঠে এলো ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে সংগঠিত ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস।

এপিসোডে দেখা যায়, ‘বিখ্যাত ব্যবসায়ী প্রতাপ নারায়ণ চৌধুরীর নাতনি ডালি চৌধুরীকে বিয়ে করার সুবাদে সিরিয়ালটির নায়ক গোবিন্দ কোম্পানির চেয়ারম্যান হয়ে যান। তিনি নিজে সাদাসিধা পোশাক পরে অফিসে আসেন, অন্যান্য স্টাফদেরও নির্দেশ দিয়েছেন স্যুট, কোট, টাই ছেড়ে শুধু ধুতি-পাঞ্জাবি পরে অফিসে আসতে। নারীদের ক্ষেত্রে শাড়ি। সেই মত সবাই ধুতি-পাঞ্জাবি ও শাড়ি পরে অফিসে আসেন।

এমনকি অফিসে ইংরেজির বদলে বাংলা বলারও অভ্যাস করতে বলেন কোম্পানির চেয়ারম্যান গোবিন্দ। ১৯ নভেম্বরের এপিসোডে তিনি অফিসের বড় বড় অফিসারদের ডেকে বাংলায় একটি চিঠি লিখতে বললে কেউই সেটি পারেন না। শেষমেষ, চিঠি লিখে দেখান অফিসের পিয়ন পিকু দা। এমনকী অনেক ইংরেজি শব্দের বাংলা অর্থও তারা বলতে পারেন না।

তখন কোম্পানির চেয়ারম্যান গোবিন্দ সবাইকে লজ্জা দিয়ে বলেন, ‘আপনারা শিক্ষিত বাঙালি। অনেক রেখাপড়া করেছে। অথচ বাঙালি হয়েও বাংলায় একটি চিঠি লিখতে পারেন না। এ লজ্জা কার? জানেন এই বাংলা ভাষার ইতিহাস? এই ভাষাকে প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে ১৯৫২ সালে আমাদের সবার প্রিয় বাংলাদেশে কত মানুষ জীবন দিয়েছিলেন? কত আন্দোলন হয়েছিল, সংগ্রাম হয়েছিল?’

এছাড়াও তিনি স্বামী বিবেকানন্দসহ বড় বড় বাঙালি কবি, সাহিত্যিক ও লেখকদের উদাহরণ টেনে আনেন। বাংলা ভাষা সম্পর্কে তাঁদের কৃতিত্বের কথা তুলে ধরেন। এ সময় সবাই কোনো উত্তর দিতে না পেরে লজ্জায় চুপ করে দাঁড়িয়ে থাকেন।

উল্লেখ্য, ‘ভজ গোবিন্দ’ সিরিয়ালটি প্রতিদিন বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় স্টার জলসায় প্রচারিত হয়। যেখানে নায়ক গোবিন্দ প্রতাপ নারায়ণ চৌধুরীর বাড়িতে কাজের লোক সেজে ঢোকেন। তাঁর একমাত্র নাতনি ডালি চৌধুরীকে বিয়ে করে সে বাড়ির জামাই হন। সিরিয়ালটিতে গোবিন্দের পুরো চরিত্রটাই রহস্যেঘেরা।

ঢাকাটাইমস/১৯নভেম্বর/এএইচ   

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত